মেইন ম্যেনু

ঝড়ের কারণে বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন দক্ষিণাঞ্চল

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘রোয়ানু’র প্রভাবে শনিবার ভোর থেকেই দেশের উপকূলীয় জেলাগুলোতে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যাচ্ছে। দেশের দক্ষিণাঞ্চলসহ দেশের সব জায়গায় বৃষ্টি হচ্ছে।

ঝড়ের কারণে শুক্রবার রাত ১২টার পর থেকে বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে দক্ষিণাঞ্চল। ভারী বর্ষণের কারণে প্লাবিত হয়েছে নিম্নাঞ্চল। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে কয়েক লাখ মানুষ।

এ ছাড়া ঝড়ে ঘর চাপা পড়ে দুজন ও পটুয়াখালীতে একজন নিহত হয়েছেন। লেবুখালী ও বেকুটিয়া ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় বিভাগীয় শহরের সঙ্গে পটুয়াখালী, পিরোজপুর ও বরগুনার সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে।

তজুমদ্দিন উপজেলায় চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, ঝড়ে তজুমদ্দিন এলাকায় লন্ডভন্ড হয়ে গেলেও গত ৫ ঘণ্টার মধ্যে সাহায্যের জন্য কেউ আসেনি। খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছে শত শত মানুষ।

বরিশাল বিআইডব্লিউটিএর নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের উপপরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান জানান, শুক্রবার বিকেল ৫টার পর বরিশালের অভ্যন্তরীণ বা ঢাকা-বরিশাল রুটের লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। পরবর্তী নিদেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে।

তিনি বলেন, ঘূর্ণিঝড় ‘রোয়ানু’র প্রভাবে প্রতিটি নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। এ কারণে নদী তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলগুলো প্লাবিত হয়েছে। এ ছাড়া নদী উত্তাল থাকায় লেবুখালী ও বেকুটিয়া ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান মাসুদ পাটোয়ারী জানান, ঘূর্ণিঝড় ‘রোয়ানু’র প্রভাবে এখানে ভারী বৃষ্টি হচ্ছে। সমুদ্রের পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। এ ছাড়া উপজেলার চম্পাপুরের ভাঙা বেড়িবাঁধ দিয়ে পানি প্রবেশ করেছে। এতে কয়েক হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

বরিশাল আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল হালিম জানান, বরিশাল, ঝালকাঠি, পটুয়াখালী, বাগেরহাট, খুলনাসহ বেশ কয়েকটি এলাকার উপকূলীয় অঞ্চলে ৬ নম্বর বিপৎসংকেত জারি করা হয়েছে। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগীয় শহর বরিশালে ১৯৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

বরিশালের ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতির কর্মসূচির উপপরিচালক মো. আবদুর রশীদ জানান, ঘূর্ণিঝড় ‘রোয়ানু’ মোকাবিলায় বিভাগের ৬ হাজার ১৫০ জন স্বেচ্ছাসেবক রয়েছেন। এ ছাড়া বরিশালে ২৩৪টি, দশমিনায় ৩৩টি, গলাচিপায় ৬২টি, মঠবাড়িয়ায় ৩৩টি, শরণখোলায় ৭৪টি, ভোলায় ২৪২টি, বরগুনায় ৩২৪টি সাইক্লোন শেল্টার খোলা রাখা হয়েছে। সেখানে অনেক মানুষ আশ্রয় নিয়েছে।