মেইন ম্যেনু

টনসিলের ব্যথা দূর করুন ঘরোয়া ৫ কার্যকরী উপায়ে!

অনেক সময় গলার ভিতরে ব্যথা করে। এই ব্যথা সাধারণত টনসিল ইনফেকশনের কারণে হয়ে থাকে। টনসিলের সমস্যা সাধারণত সব বয়সের হয়ে থাকে। টনসিল হল জিভের পিছনে গলার দেয়ালের দু’পাশে গোলাকার পিণ্ডের মতো যে জিনিসটি দেখা যায় সেটাই টনসিল। এটি দেখতে মাংসপিণ্ডের মত মনে হলেও এটি মূলত এক ধরণের টিস্যু। এই টনসিল মুখ, গলা, নাক কিংবা সাইনাস হয়ে রোগজীবাণু অন্ত্রে বা পেটে ঢুকতে বাধা দিয়ে থাকে। ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে টনসিলের প্রদাহ হয়ে থাকে। সর্দি-কাশির ভাইরাসগুলো এই সংক্রামণের জন্য দায়ী। টনসিল ইনফেকশন হলে ঘরোয়া উপায়ে এই দূর করা সম্ভব।

১। সবুজ চা এবং মধু

এক কাপ গরম পানিতে এক চা চামচ সবুজ চা পাতা দিয়ে ১০ মিনিট ফুটিয়ে নিন। এবার এটি আস্তে আস্তে চুমুক দিয়ে চা পান করুন। দিনে ৩ থেকে ৪ কাপ এই চা পান করুন। সবুজ চায়ে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে যা সব রকম ক্ষতিকর জীবাণু ধ্বংস করে থাকে। টনসিলের ব্যথা আস্তে আস্তে কমিয়ে থাকে।

২। লবণ পানি

গলা ব্যথা শুরু হলে যে কাজটি কম বেশি আমরা সবাই করে থাকি তা হল লবণ পানি দিয়ে কুলকুচা করে থাকেন। এটি টনসিলের ব্যথা কমিয়ে ইনফেকশন দূর করে থাকে। Student Health Services at the University of Connecticut এর মতে কুসুম গরম লবণ পানি দিয়ে কুলকুচা টনসিল ইনফেকশন দূর করে থাকে। এমনকি গলার ব্যাকটেরিয়া দূর করে দেয়।

৩। আদা চা

এক কাপ পানিতে এক চা চামচ আদা কুচি দিয়ে ১০ মিনিট জ্বাল দিন। প্রতিদিন এটি পান করুন। আদার অ্যান্টি ব্যকটেরিয়াল, অ্যান্টি ইনফালামেন্টরী উপাদান ইনফেকশন ছাড়াতে বাধা প্রদান করে। এর সাথে সাথে ব্যথা কমিয়ে দিয়ে থাকে।

৪। হলুদ দুধ

এক কাপ গরম দুধে এক চিমটি হলুদ মিশিয়ে নিন। ছাগলের দুধ টনসিলের ব্যথা দূর করতে বেশ কার্যকরী। ছাগলের দুধে অ্যান্টিব্যায়টিক উপাদান আছে। হলুদ অ্যান্টি ইনফ্লামেন্টরী, অ্যান্টি ব্যায়টিক এবং অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ একটি মশলা। যা গলা ব্যথা দূর করে টনসিলের ইনফেকশন দূর করে থাকে।

৫। লেবুর রস

২০০ মিলিগ্রাম গরম পানিতে লেবুর রস, এক চা চামচ মধু, আধা চা চামচ লবণ ভাল করে মিশিয়ে নিন। যতদিন গলা ব্যথা ভাল না হয় তত দিন পর্যন্ত এটি ব্যবহার করুন। টনসিলের সম্যসা দূর করার জন্য এটি বেশ কার্যকরী।