মেইন ম্যেনু

টাকার জন্য স্কুলছাত্রী মেয়েকে যৌনপল্লীতে বিক্রি করল মা!

টাকার লোভে ১৪ বছরের কিশোরী একমাত্র মেয়েকে যৌনপল্লীতে বিক্রি করেছে শ্যামলী নামে এক মা। এ ঘটনায় অভিযুক্ত মাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার আদালতে তোলা হলে ওই মাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

নির্মম ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দিল্লীতে। পুলিশ জানায়, এ নারীর স্বামী মারা যান তিন বছর আগে। তার বাড়ি দক্ষিণ কলকাতার কালীঘাটে। স্বামী সঞ্জয় হালদারের মৃত্যুর পর সোনারপুরের নরেন্দ্রপুরে চলে আসে শ্যামলী। সেখান থেকে দিল্লির একটি পতিতাপল্লীতে স্কুলছাত্রী মেয়েকে বিক্রি করে দেয় ৯ লাখ রুপির বিনিময়ে। পরে এক যুবকের সাহায্যে কোনোমতে পালাতে সক্ষম হয় মেয়েটি।

ফিরে গিয়ে ওই কিশোরী বলেছে, বাসন্তীর কলহাজারা গ্রামের এক যুবক ওই পতিতা পল্লিতে যায়। সেখানে কিশোরীর সঙ্গে পরিচয় হয় তার। মূলত ওই যুবকের সঙ্গেই দিল্লি থেকে পালিয়ে আসতে পেরেছে সে।

মেয়েটি অভিযোগ করে বলে, বছরখানেক আগে এক ব্যক্তির সঙ্গে কাজে পাঠানো হয় তাকে। কিন্তু সেখানে গিয়ে জানতে পারে তাকে লক্ষাধিক টাকায় বিক্রি করে দেওয়া হয়েছে।

গ্রেফতার হওয়া মা অবশ্য এই বিষয়ে কিছু বলতে চায়নি। ক্যানিং থানার পুলিশ ওই কিশোরীকে হোমে পাঠানোর ব্যবস্থা করে। মেয়েটির দিদিমা সবিতা হালদার জানিয়েছেন, এক বছরের বেশি সময় ধরে মেয়ের কথা জিজ্ঞাসা করছি। কোনো স্পষ্ট উত্তর দেয়নি ওই নারী।