মেইন ম্যেনু

টানা বর্ষণে কাপ্তাইয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন বেড়েছে

কয়েক দিনের টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে কাপ্তাই হ্রদের পানি অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় কাপ্তাই পানিবিদ্যুৎ কেন্দ্রের সর্বোচ্চ ২৩৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন সম্ভব হচ্ছে।

হ্রদের পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় শনিবার থেকে ১৬টি গেট দিয়ে সেকেন্ডে ৯ হাজার কিউসেক পানি ছাড়া হচ্ছে। কাপ্তাই পানিবিদ্যুৎ কেন্দ্রের স্পিলওয়ে দিয়ে প্রতি সেকেন্ডে অতিরিক্ত ৯ হাজার সিএফএস পানি ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে।

কাপ্তাই পানিবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক মো. আব্দুর রহমান জানান, কয়েক দিনের টানা বর্ষণে কাপ্তাই হ্রদের পানি অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমান মৌসুমে কাপ্তাই হ্রদের পানি থাকার কথা ছিল ৮৯ ফুট এমএসএল। বর্তমানে তা বেড়ে গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১০৪.৯৯ ফুট এমএসএল। স্বাভাবিকের তুলনায় হ্রদের পানি ১৫.৯৯ ফুট বৃদ্ধি পাওয়ায় শনিবার দুপুর ১২টা থেকে এই পানি ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে। রবিবারও একইভাবে ছাড়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক জানান, কাপ্তাই হ্রদের পানি বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে কাপ্তাই হ্রদের স্পিলওয়ে দিয়ে ৬ ইঞ্চি উঠিয়ে দিয়ে ৯ হাজার সিএফএস ছাড়া হচ্ছে এবং হ্রদের পানি বৃদ্ধির ফলে কাপ্তাই পানিবিদ্যুৎ কেন্দ্র সর্বোচ্চ উৎপাদনে যেতে সক্ষম হয়েছে। বর্তমানে ৫টি ইউনিটের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ২৩৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা সম্ভব হচ্ছে।

তিনি জানান, ২৩৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে কাপ্তাই হ্রদ থেকে প্রতি সেকেন্ডে আরও ৩৪ হাজার ১৩১ সিএফএস পানি নিষ্কাশন হচ্ছে। রবিবার ২৩৫ থেকে ২৪০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের সম্ভাবনা আছে।

শনিবার থেকে কাপ্তাই হ্রদের ৫টি ইউনটের মধ্যে ১ নম্বর ইউনিট ৪০ মেগাওয়াট, ২ নম্বর ইউনিটে ৪৫, ৩ নম্বর ইউনিটে ৫০, ৪ নম্বর ইউনিটে ৫০ ও ৫ নম্বর ইউনিটে ৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হচ্ছে।



« (পূর্বের সংবাদ)