মেইন ম্যেনু

টেকনাফে বিটিআরসি চেয়ারম্যানের সাথে মতবিনিময় সভায় তথ্য প্রকাশ

বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রিগুলেটরী কমিশনের চেয়ারম্যান সুনীল কান্তি বোস বলেছেন, জাতীয় নিরাপত্তাকে সর্বোচ্চ বিবেচনায় এনে সীমান্তে মোবাইল নের্টওর্য়াক সচল রাখতে হবে। সীমান্তের ওপারে বিদ্যমান মোবাইল নের্টওয়ার্ক দ্রুত নিয়ন্ত্রনের পাশাপাশি বাংলাদেশের নাগরিক নন এমন ব্যক্তিদের সীম বিক্রি বন্ধ রাখতে হবে।

এ ক্ষেত্রে মোবাইল ওপারেটর কোম্পানী গুলোকে বিশেষ করে কক্সবাজার অঞ্চলের জন্য ব্যবসায়ী মনোবৃত্তি পরিহার করে দেশপ্রেমে উজ্জ্বীবিত হবে এক যোগে কাজ করতে হবে। এ ক্ষেত্রে সরকার সীমান্তে নেটওর্য়াক নিরবিচ্ছিন্ন রাখতে সম্ভাব্য সব ধরনের সহযোগিতা করে যাবে। গত ১০ অক্টোবর শনিবার সকালে টেকনাফ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ইউএনও শাহ মোজাহিদ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন তিনি।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন বিজিবি ৪২ ব্যাটলিয়ন কমান্ডার লে. কর্ণেল আবুজার আল জাহিদ, টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আতাউর রহমান খোন্দকার, মোবাইল ওপারেটর রবি’র ভিপি রেজাউল করিম, টেলিটকের মোঃ ফরিদসহ গ্রামীন ফোন,সিটিসেল, এয়ারটেল,বাংলালিংক প্রতিনিধি, উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি জহির হোসেন এমএ, গণমাধ্যম প্রতিনিধি জাবেদ ইকবাল চৌধুরী, হাফেজ মোঃ কাশেম, আশেক উল্লাহ ফারুকী প্রমুখ।

সভায় বিজিবি প্রতিনিধি জানান, এখনো মিয়ানমারের অভ্যান্তরে প্রায় ৫/৬ কিলোমিটারের মধ্যে বাংলাদেশী মোবাইল নের্টওয়াক যেমন পাওয়া যায়,তেমনি বাংলাদেশের অভ্যান্তরেও মিয়ানমারের ম্যাগটেল ও এমটিসি নামের মোবাইল ওপারেটরের নের্টওর্য়াক পাওয়া যায়। যার ফলে সীমান্ত চোরাচালান নিয়ন্ত্রন ও জাতীয় নিরাপত্তার মত ষ্পর্শকাতর বিভিন্ন গুরুত্ত্বপূর্ণ বিষয় হুমকির সম্মুখিন হচ্ছে।

তিনি এ সমস্যা রোধে সীমান্তের জিরো লাইন ধরে এক মুখী নের্টওর্যাক চালুর প্রস্তাব করেন। এ ছাড়া সীমান্তের জিরো লাইনে যৌর্থ সার্ভে পরিচালনায় মোবাইল ওপারেটর গুলোকে সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস ব্যক্ত করেন।

প্রসংগত সীমান্ত উপজেলা টেকনাফে প্রায় ১ লাখ ২০ হাজারের মত মোবাইল গ্রাহক রয়েছে। যার মধ্যে শুধু মাত্র রবি’র গ্রাহক হচ্ছে ৭০ হাজারের উর্ধ্বে। এদিকে সীমান্তে নের্টওয়ার্ক নিরবিচ্ছিন্ন রাখতে ক্ষেত্র বিশেষে “মাইক্রো সেল” বসানোর প্রস্তাব সরকার সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করছে বলেও তথ্য প্রকাশ করেন বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরী কমিশনের চেয়ারম্যান।