মেইন ম্যেনু

টেকনাফে হ্নীলা ও হোয়াইক্যং ইউনিয়নের প্রতীক বরাদ্ধ শেষ

ফয়েজুল ইসলাম রানা, টেকনাফ (কক্সবাজার) থেকে: বহু জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ও হোয়াইক্যং ইউনিয়নের নিবার্চনী প্রতিক বরাদ্ধ শেষ হয়েছে।

১১ মার্চ শুক্রবার সকাল থেকেই ২টি ইউনিয়নের ৭জন চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৩০জন, সাধারণ সদস্য পদে ১৪৩জন প্রতিক সংগ্রহ করে। প্রত্যাশিত প্রতীক পাওয়ার সাথে সাথেই কর্মী সমর্থকরা প্রতীক নিয়ে শুরু করে আনন্দ মিছিল। শ্লোগানে শ্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে গোটা এলাকা। অনেকেই গাড়ীর বহর নিয়ে নির্বাচনি এলাকায় ছুটতে থাকে। উপজেলার গোটা এলাকা প্রার্থীদের মাইকিং পোস্টারিং ও প্রচার-প্রচারণায় উৎসবে পরিণত হয়।

আগামী ২৭ মার্চ ২টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণের দিন ধার্য করা হয়েছে। হ্নীলা ও হোয়াইক্যং ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র ৭জন চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্ধ দেয় সংশ্লিষ্ট রিটানিং অফিসার। নির্ধারিত দিনে উৎসব মুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে টেকনাফ উপজেলার ২টি ইউনিয়নে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

চেয়ারম্যানদের দলীয় এবং সাধারণ ও সংরক্ষিত সদস্যদের জন্য নির্বাচন কমিশন কর্তৃক নির্ধারিত প্রতীক বরাদ্ধ দেয়া হয়। উপজেলা নির্বাচন অফিসার নুরুল ইসলাম, হ্নীলা ও হোয়াইক্যং ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটানিং কর্মকর্তা একাডেমিক সুপার ভাইজার নুরুল আবছার সকাল ১০ টা থেকে প্রার্থীদের পছন্দ করা এবং লটারির মাধ্যমে প্রতীকগুলো বাছাই করে প্রার্থীদের জন্য নির্ধারণ করে প্রতিক বরাদ্ধ দেন।

প্রার্থীদের উপস্থিতিতে এ সকল প্রতীক বরাদ্দ করা হয়। প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পরপরই প্রার্থীরা সমর্থকদের সঙ্গে নিয়ে প্রচারণায় নেমে পড়েন। যার যার সমর্থকদের আনন্দমূখর শ্লোগানে শ্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে গোটা নির্বাচনী এলাকা। অনেক প্রার্থী প্রতীক নেওয়ার জন্য উপজেলা নির্বাচন অফিসে আসার সময় চাঁন্দের গাড়ী, অটোরিক্সায় মাইক বেঁধে নেচে গেয়ে বিপুল সমর্থক নিয়ে উৎসব করতে থাকেন।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ২টি ইউনিয়নে আগামী ২৭ মার্চ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ২ ইউনিয়নে ৭ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন। এদের মধ্যে হ্নীলা ইউনিয়নে ৪ জন প্রার্থী। এরা হচ্ছেন সাবেক চেয়ারম্যান এইচ কে আনোয়ার (আঃলীগ), জাফর আলম মেম্বার (বিএনপি), মোঃ ফিরোজ (স্বতন্ত্র), জহির আহম্মদ (স্বতন্ত্র),।

হোয়াইক্যং ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৩ জন। এরা হচ্ছেন, ফরিদুল আলম জুয়েল (আঃলীগ), জুনায়েদ আলী চৌধুরী (বিএনপি), বর্তমান চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ নুর আহম্মদ আনোয়ারী (্স্বতন্ত্র)।

দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর স্ব-স্ব প্রার্থীরা প্রতিক পেয়ে আনন্দ মুখর হয়ে পড়ে। অনেকেই আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করেন।

উল্লেখ্য যে, সাম্প্রতিক সময়ে ফিরোজ নামে এক ব্যক্তি হ্নীলা ও হোয়াইক্যং ইউনিয়নের রোজার ঘোনা নামক স্থানে সীমানা সংক্রান্ত বিরোধ রয়েছে মর্মে মহাম্মান্য হাই কোটে রীট করলে হাই কোট নিবার্চন ৪সপ্তাহের জন্য স্থগিত ঘোষনা করেন। এর বিপরিতে নিবার্চন কমিশন ও প্রার্থীরা আপিল করলে স্থাগিতাদেশ বাতিল হয়ে যায়।