মেইন ম্যেনু

টেকনাফে ৪ ইউনিয়নে ৩টিতে নৌকা ১টিতে ধানের শীষ এগিয়ে

ফয়েজুল ইসলাম রানা, টেকনাফ: টেকনাফে ৪টি ইউনিয়নের নিবার্চনে আর মাত্র ৬দিন বাকী। নির্বাচনী মাঠ পরিদর্শন করে ও ভোটারদের জরিপ মতে, সরকারী দলের নৌকা প্রতিকে ৩টি ও বিরোধী দল (বিএনপি) ধানের শীষ প্রতিকে ১টিতে এগিয়ে রয়েছে। তবে এখনো আরও ৬দিন বাকী থাকায় কোন খালের পানি কোন দিকে গড়ায় তা সঠিক ভাবে বলা যাচ্ছেনা বলে মন্তব্য ভোটার ও সচেতন মহলের।

বাহারছড়া ইউনিয়ন পরিদর্শনে দেখা যায়, এখানে চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রায় ৭জন। তৎমধ্যে মাঠে রয়েছে ৪জন। এদের মধ্যে ধানে শীষ মোঃ সেকান্দর, নৌকায় মৌঃ আজিজ উদ্দিন, স্বতন্ত্র বর্তমান চেয়ারম্যান মৌঃ হাবিবুর রহমান প্রতিক (আনারস), মৌলভী রফিকুল্লাহ প্রতিক ( চশমা)। ৪জন চেয়ারম্যান প্রার্থী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন।

এখানে বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে ভোটারদের সাথে আলাপ করে জানা যায়, মূল প্রতিদন্দিতা হবে বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ থেকে বহিস্কৃত নেতা মৌঃ হাবিব উল্লাহ ও নৌকার প্রতিক মৌলভী আজিজ উদ্দিনের সাথে। কিন্তু মাঠ পর্যায়ে দেখা যায়, মৌঃ আজিজ উদ্দিন নৌকা প্রতিক অনেক এগিয়ে। এদিকে সাবরাং ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রায় ৮জন। কিন্তু মাঠ পর্যায়ে রয়েছে ৫জন। এদের মধ্যে নৌকা প্রতিক আলহাজ্জ্ব সোনা আলী, আওয়ামীলীগ থেকে বহিস্কৃত নেতা নুর হোসেন মেম্বার টেলিফোন প্রতিক, বিএনপির প্রার্থী সোলতান আহম্মদ ধানের শীর্ষ প্রতিক, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ ইসমাঈল মেম্বার প্রতিক আনারস, বর্তমান চেয়ারম্যান হামিদুর রহমান, স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল ফয়েজ চশমা প্রতিক। এখানে ভোটারও সচেতন মহলের মতে, মূল প্রতিদন্দিতা হবে আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতিক আলহাজ্জ সোনা আলী, আওয়ামীলীগ থেকে বহিস্কৃত নেতা নূর হোসেন মেম্বার টেলিফোন প্রতিক ও বিএনপির প্রার্থী সোলতান আহম্মদ মেম্বারের সাথে। তবে ভোটার ও সচেতন মহলের মতে, বর্তমানে আওয়ামীলীগ থেকে বহিস্কৃত নেতা নূর হোসেন মেম্বার ও ধানের শীষের প্রতিক সোলতান আহম্মদ এগিয়ে রয়েছে। সদর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৭জন। কিন্তু মাঠে রয়েছে ৩জন। এরা হচ্ছেন, বর্তমান চেয়ারম্যান নৌকা প্রতিক নুরুল আলম, ধানের শীষ প্রতিকের জিয়াউর রহমান জিয়া ও আওয়ামীলীগ থেকে বহিস্কৃত নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহাজান মিয়া আনারস প্রতিক। এতে ভোটার ও সচেতন মহলের মতে, ৩জন প্রার্থী সমানে চললেও কিন্তু বর্তমান চেয়ারম্যান নুরুল আলম কিছুটা এগিয়ে রয়েছে। তবে এখনো ৬দিন বাকী থাকায় ভোটারদের উপর নির্ভর করবে ফলাফল। এদিকে সেন্টমার্টিনে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৫জন। কিন্তু মাঠে রয়েছে ৩জন। এদের মধ্যে নৌকার প্রতিকে মুজিবুর রহমান, আওয়ামীলীগ থেকে বহিস্কৃত স্বতন্ত্র প্রার্থী নুর আহম্মদ মেম্বার প্রতিক আনারস ও বিএনপির ধানের শীষ প্রতিকের মৌলভী আব্দুর রহমান। এদের মধ্যে নৌকার প্রতিক মুজিবুর রহমান ও আওয়ামীলীগের বহিস্কৃত নেতা নুর আহম্মদ মেম্বারের সাথে প্রতিদন্দিতা হবে বলে এলাকার ভোটারগণ জানান।

তবে ভোটারদের মতে, বর্তমানে বহিস্কৃত নেতা নুর আহম্মদ মেম্বার এগিয়ে রয়েছে বলে এলাকার ভোটার ও সচেতন মহল জানায়। এদিকে অনেক প্রার্থী সুষ্ট-নিরপেক্ষ আদৌ ভোট হবে কিনা সন্দেহ পোষণ করছে। এদের ভাষ্য মতে, সুষ্ট নিরপেক্ষ নিবার্চন হলে অনেক নৌকার প্রতিক প্রার্থী ধরাশয়ী হবেন। অপর দিকে অনেক ভোটার মন্তব্য করেছেন, সরকার দলীয় প্রার্থীদেরকে নির্বাচিত না করলে এলাকার উন্নয়ন কখনো আশা করা যায়না। সুতারাং ভোটারদের নিরপেক্ষ মতামত প্রদানের লক্ষ্যে সুষ্ট নিবার্চন একান্ত পরিহার্য মতামত সচেতন মহলের।