মেইন ম্যেনু

ট্রাম্প দেখালেন, হিলারি হাসলেন

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশী ও প্রাক্তন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন ১৫ মার্চের প্রাইমারিতে তার জনপ্রিয়তার উজ্জ্বল স্বাক্ষর রেখেছেন। অন্যদিকে রিপাবলিকান পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প দেখালেন, তার জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বি।

এ দিনের প্রাইমারিতে ডেমোক্রেটিক পার্টির অপর মনোনয়নপ্রত্যাশী বার্নি স্যান্ডার্স প্রায় দ্বিগুণ ব্যবধানে হিলারির চেয়ে পিছিয়ে পড়েছেন। ফলে মনোনয়ন পাওয়ার দৌড়ে তিনি হয়তো শেষ পর্যন্ত টিকবেন না।

আর এ দিনে রিপাবলিকান মনোনয়নপ্রত্যাশী টেড ক্রুজের ভরাডুবি হয়েছে বলা যায়। ট্রাম্পের সঙ্গে প্রতিনিধির সংখ্যার বিচারের তার ব্যবধান প্রায় দ্বিগুণ। যে কারণে প্রাইমারি ও ককাস শেষ হওয়ার আগেই হয়তো ট্রাম্প রিপাবলিকান দলের মনোনয়ন পাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয়সংখ্যক প্রতিনিধি নিশ্চিত করে ফেলতে পারেন।

রিপাবলিকান দলের অপর দুই প্রার্থীর মধ্যে মার্কো রুবিও মনোনয়ন নির্বাচন থেকে ছিটকে পড়েছেন। সব রাজ্যে ভরাডুবি হওয়ায় রুবিও নিজেকে বাছাই পর্ব থেকে প্রত্যাহার করে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। আর জন কাসিক একটি রাজ্যে জিতে এখনো আশা জিইয়ে রেখেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় মঙ্গলবার পাঁচটি রাজ্যে প্রাইমারি অনুষ্ঠিত হয়। রাজ্যগুলো হলো- ফ্লোরিডা, ইলিনইস, মিজৌরি, নর্থ ক্যারোলাইনা এবং ওহাইও।

পাঁচ রাজ্যের মধ্যে এরইমধ্যে ফ্লোরিডা, ইলিনইস, নর্থ ক্যারোলাইনা এবং ওহাইওর ফল ঘোষণা করা হয়েছে। এ চার রাজ্যে বিজয়ী হয়েছেন হিলারি ক্লিনটন। মিজৌরিতে হিলারি সামান্য ব্যবধানে এগিয়ে আছে। চূড়ান্ত ফল ঘোষণা করা হবে কিছু সময়ের মধ্যে।

চার রাজ্যে হিলারির প্রাপ্ত ভোট : ফ্লোরিডা ৬৫ শতাং, ইলিনইস ৫১ শতাংশ, নর্থ ক্যারোলাইনা ৫৫ শতাংশ, ওহাইও ৫৭ শতাংশ। আর মিজৌরিতে ৯৯ শতাংশ ভোট গণনা শেষে হিলারি ৫০ শতাংশ এবং স্যান্ডার্স ৪৯ শতাংশ ভোট পেয়েছেন।

এবার দেখে নেওয়া যাক, রিপাবলিকানরা কোথায় কেমন করেছেন। ট্রাম্পের প্রাপ্ত ভোট : ফ্লোরিডা ৪৬ শতাংশ, ইলিনইস ৩৯ শতাংশ, নর্থ ক্যারোলাইনা ৪০ শতাংশ, ওহাইও ৩৬ শতাংশ। এর মধ্যে ওহাইওতে জন কাসিক পেয়েছেন ৪৭ শতাংশ। অর্থাৎ চার রাজ্যের তিনটিতে একক বিজয় নিশ্চিত করে জনপ্রিয়তার সূচকে সুনির্দিষ্ট ব্যবধানে সবার চেয়ে এগিয়ে গেছেন ট্রাম্প।

টেড ক্রুজের জন্য ১৫ মার্চ অভিশাপ হয়ে দেখা দিল। কোনো রাজ্যে জয় পাননি তিনি। তবে মিজৌরি রাজ্যে ৯৯ শতাংশ ভোটের ফলাফলে দেখা যাচ্ছে, তিনি ট্রাম্পের খুব কাছাকাছি ভোট পেয়েছেন। এ রাজ্যে ট্রাম্প ও ক্রুজ হয়তো সমান ভোট পেতে পারেন।

আর সবচেয়ে দুর্ভাগ্য মার্কো রুবিও। নিজ রাজ্য ফ্লোরিডায় ফেরে বসে গেছেন তিনি। এখন রিপাবলিকান পার্টির তিন মনোনয়নপ্রত্যাশী লড়াইয়ে টিকে রইলেন। তবে কাসিকের জন্য প্রার্থী হওয়ার আশা দ্রুত ফিকে হয়ে যাচ্ছে। যেকোনো সময় তার বসে যাওয়ার খবর আসতে পারে।