মেইন ম্যেনু

ঠোঁট থাকুক আহ্লাদে

মেকআপ উইদাউট লিপস্টিক! তা আবার হয় নাকি? যে-কোনও সাজেই লিপস্টিকের কদর চিরকালীন। কিন্তু তাই বলে খানিকটা লিপস্টিক নিয়ে ঠোঁটে ঘষে নিলেই হল না। লিপস্টিক লাগানোরও কায়দা আছে। সেই কায়দাটা রপ্ত করতে হবে। সকলের আগে দেখতে হবে যে, আমার ঠোঁটের শেপ কেমন। ঠোঁটের শেপের উপর নির্ভর করে ঠোঁটের মেকআপ। বাঁকা ঠোঁট, মোটা ঠোঁট, রোগা ঠোঁট, সরু ঠোঁট… ঠোঁটের শেপ যেমনই হোক না কেন, তাই নিয়ে ঠোঁট থেকে হাসি যেন উবে না যায়। তার চেয়ে বরং শিখে নিই ঠোঁটের শেপ অনুযায়ী মেকআপ কেমন হবে। আজ রইল ঠোঁটের ঠাটবাটের নতুন পাঠ।

ঠোঁটের শেপ অনুযায়ী মেকআপ

উপরের ঠোঁট মোটা হলে

অনেকেরই নীচের ঠোঁটের তুলনায় উপরের ঠোঁট মোটা হয়। সেক্ষেত্রে ঠোঁটের মাঝখান থেকে শুরু করে বাইরের দিকে লাইন করবে প্রথমে। লিপ লাইন করার সময় উপরের ঠোঁটের লাইনের ভিতর দিয়ে আউটলাইন করবে আর নীচের ঠোঁটের লাইনের বাইরে দিয়ে আউটলাইন করবে। তাহলে দু’টো ঠোঁটের আকার সমান হয়ে যাবে। এবার যে লিপস্টিক লাগাবে তার এক শেড লাগাবে নীচের ঠোঁটে আর দু’-তিন শেড গাঢ় হবে উপরের ঠোঁটের লিপকালার। মনে রাখবে হালকা রং ঠোঁটকে বেশি মোটা দেখায় আর গাঢ় রং-এ ঠোঁট পাতলা দেখায়। এবার নীচের ঠোঁটের মাঝখানে আইশ্যাডো থেকে খানিকটা সাদা শ্যাডো নিয়ে ড্যাব করে নাও। দেখবে নীচের ঠোঁটটাও অনেক ভরাট দেখাবে। আলাদা করে উপরের ঠোঁট মোটা দেখাবে না। বরং দু’টো ঠোঁটের মধ্যে সামঞ্জস্য আসবে।

নীচের ঠোঁট মোটা হলে

উপরের ঠোঁট মোটা হলে যেই ট্রিক্স কাজে লাগানোর কথা বলা হল, ঠিক তার উলটোটা করতে হবে, নীচের ঠোঁট মোটা হলে নীচের ঠোঁটের ভিতর দিয়ে আউটলাইন করবে। তারপর উপরের ঠোঁটের যদি এক শেড লিপকালার লাগাও, তাহলে নীচের ঠোঁটে দু’-তিন শেড লিপকালার লাগাবে। তাহলেই নীচের ঠোঁট আর বেশি মোটা দেখাবে না।

পাতলা ঠোঁট

ঠোঁট পাতলা হলে সবসময় বাইরের দিক দিয়ে আউটলাইন করবে। এতে ঠোঁটের আকারটা বড় দেখায়। এবার ঠোঁটের ভিতরে তোমার পছন্দের রংয়ের লিপস্টিকের হালকা শেড লাগাবে। মনে রাখবে হালকা শেডের লিপ কালার ঠোঁটকে অনেক ভরাট দেখাতে সাহায্য করে।

বড় ঠোঁট

এক্ষেত্রে ঠোঁটের ভিতরদিক দিয়ে আউটলাইন করবে। এতে ঠোঁটটা আকারে একটু ছোট হয়ে আসবে। একটু গাঢ় রং দিয়ে এই ঠোঁটের মেকআপ করার চেষ্টা করবে। তবে খয়েরির শেড অ্যাভয়েড করবে।

ছোট্ট ঠোঁট

ছোট্ট ঠোঁট সবসময়ই খুব সুন্দর দেখায়। তাই আউটলাইন না করে যে-কোনও লিপস্টিকই লাগিয়ে ফেলতে পার ফটাফট। তবে শিমারি, ফ্রস্টি, গ্লসি ইত্যাদি লিপস্টিকই এই ঠোঁটে ভাল মানাবে। বেশি ডার্ক লিপস্টিক ব্যবহার করবে না। তাহলে ঠোঁটটা বসে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

তবে ঠোঁটের শেপ যা-ই হোক না কেন, যে-কোনও লিপ কালার লাগানোর আগে দরকার প্রপাপ আউটলাইন। তাই লিপলাইন করার সময় খুব যত্ন করে আউটলাইন করবে। লিপলাইন ভুল হলে পরে যত ভাল লিপস্টিকই লাগাও না কেন, ভাল দেখাবে না।