মেইন ম্যেনু

‘ডলার ফেরত পেতে ম্যানিলাকে চাপ দেয়া হচ্ছে’

বাংলাদেশ ব্যাংকের চুরি যাওয়া রিজার্ভের অর্থ ফিরিয়ে আনতে ম্যানিলাকে সব ধরনের চাপ দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ম্যানিলায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত জন গোমেজ।

শুক্রবার সকালে একটি বেসরকারি টেলিভিশনকে টেলিফোনে দেয়া এক সাক্ষাতকারে একথা বলেছেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের চুরি যাওয়া ৮০ কোটি ১০ লাখ ডলার ফিরিয়ে দিতে সব ধরণের চেষ্টা করা হচ্ছে জানিয়েছেন রাষ্ট্রদূত জন গোমেজ বলেন, এই অর্থ কোথায় খরচ হয়েছে সেটা দেখার বিষয় নয়।এটি আমাদের দেশের গরিব মানুষের টাকা। আমরা এই টাকা ফেরত চাই। বিষয়টি নিয়ে ফিলিপাইনের সিনেটে শুনানি হচ্ছে। পরবর্তী শুনানি আগামী ২৯ মার্চ। তবে এর মধ্যে সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি প্রতিবেদন দেয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, সিনেটের শুনানিতে আমি উপস্থিত ছিলাম।সেখানে এটা পরিষ্কার হয়েছে যে বাংলাদেশের গরিব মানুষের কষ্টার্জিত অর্থ ফিলিপাইনে ঢুকেছে। আর আসিবিসি ব্যাংকের কয়েকটি অ্যাকাউন্টে এই অর্থ জমা হয়েছে।এখন ঐ অর্থ কোথায় গেছে, কারা দায়ী সেটাদেখবে ফিলিপাইন সরকার ও সংশ্লিষ্টরা।আমরা আমাদের অর্থ ফেরত চাই। ফিলিপাইন সরকার এই অর্থ আমাদেরকে ফেরত দিবে।কীভাবে দেবে এটা ফিলিপাইন সরকারের বিষয়।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত বলেন, স্থানীয় আইনে কি আছে এটা আমাদের দেখার বিষয় নয়। রিজাল ব্যাংকে অবৈধ লেনদেন হয়েছে। তাই তাদের এ টাকা ফেরৎ দিতে হবে।