মেইন ম্যেনু

ডাবের পানিতে ওজন বাড়ে

ডাবের পানির অসংখ্য স্বাস্থ্যকর প্রভাব সম্পর্কে আমরা জানি। এটি একটি স্বাস্থ্যকর পানীয়। বিশেষ করে এই গরমে ডাবের পানি পানের জুড়ি নেই। রাস্তার পাশে নোংরা পরিবেশে বানানো শরবত কিংবা কোমল পানীয়র চেয়ে ঢের উপকারি ডাবের পানি। কিন্তু অনেকেই হয়ত জানেন না, বেশি পরিমাণে ডাবের পানি খেলে শারীরিক ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। অতিরিক্ত ডাবের পানি পানে ওজন বৃদ্ধি, রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে গিয়ে নানা মারাত্মক রোগের সৃষ্টি হতে পারে।

ক্যালরি বাড়ায়: যারা ওজন নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন, তাদের ডাবের পানি পানে সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত। অন্যান্য ফল ও পানীয়ের তুলনায় ডাবের পানিতে চিনির পরিমাণ কম হলেও এতে ক্যালরির পরিমাণ অনেকটাই। যা আপনার ওজন বৃদ্ধি করতে পারে।

রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়ায়: ডাবের পানিতে চিনির পরিমাণ কম হলেও শর্করা ও ক্যালোরির পরিমাণ অনেক বেশি। তাই যাদের ডায়াবেটিসের সমস্যা রয়েছে তাদের ডাবের পানি প্রতি দিন পান করা একেবারেই উচিৎ নয়।

রক্তের সঞ্চালন বাড়িয়ে দেয়: স্বাস্থ্যকর এই ডাবের পানিতে প্রচুর পরিমাণে সোডিয়াম রয়েছে। যা আমাদের শরীরের রক্ত প্রবাহকে ত্বরান্বিত করে। যাদের উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা রয়েছে তাদের ডাবের পানি না খাওয়াই শ্রেয়।

কিডনি রোগীদের জন্যে প্রাণঘাতী: ডাব নিয়মিত খেলে কিডনি রোগ হয় না৷ আবার কিডনি রোগ হলে ডাবের পানি পান করা সম্পূর্ণ নিষেধ৷ কারণ কিডনি অকার্যকর হলে শরীরের অতিরিক্ত পটাশিয়াম দেহ থেকে বের হয় না ৷ ফলে ডাবের পানির পটাশিয়াম ও দেহের পটাশিয়াম একত্রে কিডনি ও হৃদপিণ্ড দুটোই অকার্যকর করে ৷ এ অবস্থায় রোগীর মুত্যু অনিবার্য৷

প্রতি ১০০ গ্রাম ডাবের পানিতে জলীয় অংশ ৯৫ গ্রাম, মোট খনিজ পদার্থ ০.৩ গ্রাম, আমিষ ২.৩ গ্রাম, শর্করা ২.৪ গ্রাম, চর্বি ০.১ গ্রাম, ক্যালসিয়াম ১৫ মিলিগ্রাম, ফসফরাস ০.০১ মিলিগ্রাম, আয়রন ০.১ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি ১-০.১১ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি২ ০.০২ মিলিগ্রাম, ভিটামিন সি ৫ মিলিগ্রাম ও খাদ্যশক্তি ২৩ কিলোক্যালরি রয়েছে৷