মেইন ম্যেনু

ডায়েট করেও নিশ্চিন্তে চকলেট খেতে চান? তবে এই লেখাটি আপনারই জন্য

চকলেট না খেলে কিছুতেই মন ভরে না এমন মানুষ আছেন প্রচুর। ডায়েট করার সময়ে তাদের সবচাইতে বড় আক্ষেপ হলো চকলেট খেতে না পারা। আসলে কিন্তু ডায়েট করলে চকলেট বাদ দিতেই হবে এমন কোনো কথা নেই। চকলেট খেয়েও করতে পারেন ডায়েট। তবে মেনে চলতে হবে কিছু কৌশল।

চকলেট খেলে ওজন অনেকের বাড়ে। তার কারণটি হলো, বেশীরভাগ সময়ে চকলেটের সাথে মেশানো থাকে বিভিন্ন স্যাচুরেটেড ফ্যাট এবং চিনি যাতে এর ক্যালোরি অনেক বেড়ে যায়। এসব কারণে ডায়েটের সময়ে আপনি ইচ্ছেমত চকলেট খেতে পারবেন না ঠিকই, কিন্তু এসব নিয়ম মেনে চললে একেবারে চকলেট ছাড়াও থাকতে হবে না আপনাকে।

১) ছোট ছোট প্যাকেটে ভরা চকলেট খান

বড় একটা চকলেট বার খাওয়ার চাইতে এক কামড়ে শেষ হয়ে যায় এমন একটা চকলেট খেলে যে কম ক্যালোরি পাওয়া যাবে তা তো সহজেই বোঝা যায়। দুপুরে খাওয়ার পর একটা হার্শি’জ কিস খেলে পাওয়া যায় ২২ ক্যালোরি, কিন্তু একটা চকলেট বার খেলে আপনার ২২০ ক্যালরির চিন্তা করতে হবে। এ কারণে ছোট ছোট “ফান সাইজড” চকলেটগুলো খান যেগুলো ছোট হলেও আপনার চকলেট খাওয়ার ইচ্ছে মেটাতে সক্ষম। এটাও মনে রাখবেন, দিনে একটার বেশি কিছুতেই খাওয়া চলবে না, তাহলে হিতে বিপরীত হতে পারে। “ছোট চকলেটই তো খাচ্ছি” এটা ভাবতে গিয়ে এতো বেশি খেয়ে ফেলতে পারেন যে চকলেট বার খাওয়ার চাইতে বেশি খাওয়া হয়ে যাবে।

২) নিজেকে বঞ্চিত মনে করবেন না

আপনি যদি মনে করেন চকলেট ছাড়া আপনার চলবেই না, তাহলে সপ্তাহে নির্দিষ্ট কিছু দিন রাখুন যে দিনগুলোতে আপনি চকলেট খেতে পারবেন। নিজের ব্যায়াম এবং খাদ্যভ্যাস এই দিনগুলো অনুযায়ী ঠিকঠাক করে নিন যাতে অতিরিক্ত ক্যালোরি পেয়ে শরীর বেসামাল হয়ে না পড়ে। এমন কিছু ব্যায়াম করুন যাতে চকলেট খাওয়ার ফলে পাওয়া অতিরিক্ত ক্যালোরি পোড়ানো যায়।

৩) খান ডার্ক চকলেট

সব চকলেটই কোকো থেকে তৈরি হয় কিন্তু ডার্ক চকলেটে থাকে বেশি পরিমাণে কোকো আর কম চিনি ও ফ্যাট। তবে ডার্ক চকলেট খাওয়ার সময়েও মাত্রাতিরিক্ত খাওয়া চলবে না মোটেই। সাধারণ চকলেট যেভাবে দৈনিক অল্প একটু করে খাওয়া চলবে, সেই নিয়মটাই মেনে চলুন এর ক্ষেত্রেও।

৪) সাবধান থাকুন “ডায়েট” চকলেটের ব্যাপারে

কিছু কিছু চকলেটের র‍্যাপারে লেখা থাকে “ডায়েট” অথবা “সুগার-ফ্রি” চকলেট। এগুলোতে চিনির বদলে দেওয়া হয়ে থাকে ম্যানিটল, গ্লিসেরল অথবা জাইলিটল। এগুলো অনেকের পেট নরম করে দেয়, কারও আবার গ্যাস্ট্রিক বাড়ায়। সুতরাং এগুলো ক্যালরিতে কম হলেও খাওয়ার আগে ভেবে নিন আপনার কোনো সমস্যা হতে পারে কি না।

৫) দামী চকলেট খাবেন না

দামী চকলেটগুলো খেতে বেশি মজা হয় কারণ এগুলোতে থাকে বেশি বেশি ফ্যাট এবং চিনি। বিশেষ করে ট্রাফল জাতীয় চকলেটগুলো খেলে বেশি ক্ষতি হতে পারে। একেকটি ট্রাফল চকলেটে থাকতে পারে ৭৩ ক্যালোরি। এ কারণে একেবারে সাদামাটা চকলেট খাওয়ার চেষ্টা করুন।

মূল: Chocolate Fix for People on a Diet, eHow
Can Chocolate Be Part of a Healthy, Balanced Diet? Weight Loss Resources



« (পূর্বের সংবাদ)