মেইন ম্যেনু

ডিইউজে নির্বাচন: সভাপতি শাবান মাহমুদ, সম্পাদক সোহেল হায়দার

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) একাংশের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন শাবান মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন সোহেল হায়দার চৌধুরী।

শনিবার রাত সোয়া নয়টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি নির্বাচিতদের নাম ঘোষণা করেন।

শনিবার সকাল ৯টা থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত। সন্ধ্যা পৌনে ৭টায় নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান মুহাম্মদ শফিকুর রহমানের উপস্থিতিতে উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট গণনা শুরু হয়।

এবারের ডিইউজের নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ পাঁচটি প্যানেলে মোট প্রার্থী ৮৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

সভাপতি পদে শাবান মাহমুদ ৮৫৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী কুদ্দুস আফ্রাদ পান ৬৬৭ ভোট।

আতিকুর রহমান চৌধুরী ৭৪৫ ভোট পেয়ে সহ সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মো. মফিজুল ইসলাম পেয়েছেন ৪২৫ ভোট।

সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন শাবান-সোহেল পরিষদের সোহেল হায়দার চৌধুরী। তিনি ৫৩৪ ভোট পেয়ে তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সাজ্জাদ আলম খান তপুকে পরাজিত করেছেন। তপু ৪৪৮ ভোট পেয়েছেন।

যুগ্ম-সম্পাদক পদে শাহানা শিউলী পেয়েছেন ৫৫২ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী খায়রুল আলম পেয়েছেন ৫২৬ ভোট।

কোষাধ্যক্ষ নির্বাচিত হয়েছেন সেবিকা রাণী। তিনি ৬০৭ ভোট পেয়ে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আশারাফুল ইসলামকে পরাজিত করেছেন। তিনি পেয়েছেন ৫৫৪ ভোট।

৪৯৭ ভোট পেয়ে সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন শাহজাহান মিঞা। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মামুন আবেদীন ৪৯৪ ভোট পেয়েছেন।

প্রচার সম্পাদক পদে আকতার হোসেন ৫৯৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। আর ৫১৬ ভোট পেয়ে তার নিকটতম প্রার্থী হয়েছেন এম শাহজাহান।

ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে বিজয়ী হয়েছেন মো. মফিজুর রহমান খান বাবু। তিনি ৯১৮ ভোট পেয়ে হামিদ মোহম্মাদ জসিমকে পরাজিত করেছেন। জসিম পেয়েছেন ৩৬৬ ভোট।

জনকল্যাণ সম্পাদক হয়েছেন উম্মুল ওয়ারা সুইটি। ১০৪৯ ভোট পেয়েছেন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী জিহাদুর রহমান জিহাদ পেয়েছেন ৩৫৯ ভোট।

দপ্তর সম্পাদক পদে মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল পেয়েছেন ৭১২ ভোট। আর জি এম মাসুদ ঢালী ৬৩১ ভোট পেয়ে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হয়েছেন।

এছাড়া নির্বাহী সদস্য পদে শামীমা আক্তার (শামীমা দোলা) ( ৬৯১), দেবাশীষ রায় (৫৩৩), এ এম শাজাহান মিয়া (৬৯১), জান্নাতুল ফেরদৌস চৌধুরী (৫৭১), দুলাল খান (৫৪১), মঞ্জুশ্রী বিশ্বাস (৪৯৩), মর্তুজা হায়দার লিটন (৬১৫), সলিম উল্লাহ সেলিম (৫৯৯) এবং সোহেলী চৌধুরী (৫৪১) নির্বাচিত হয়েছেন।