মেইন ম্যেনু

ডিএনএ প্রতিবেদন মেডিক্যাল বোর্ডকে দেওয়ার নির্দেশ

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনুর ডিএনএ প্রতিবেদন দ্বিতীয় ময়নাতদন্তকারী মেডিক্যাল বোর্ডকে দিতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

রোববার কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তাহিন বিল্লাহ এ আদেশ প্রদান করেন।

কুমিল্লা সদর উপজেলা আদালতের উপ-কোর্ট পরিদর্শক এসআই বাদল চন্দ্র রায় রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, রোববার বিকেলে আদেশটি সিআইডি কুমিল্লার কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।

দ্বিতীয় ময়নাতদন্তকারী মেডিক্যাল বোর্ডের প্রধান ও কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. কামদা প্রসাদ সাহা বলেন, ‘আদালতের আদেশের বিষয়ে শুনেছি। এর আগে ডিএনএ প্রতিবেদনের জন্য সিআইডির কাছে তিনবার চিঠি দেওয়া হয়েছিল। সিআইডি ডিএনএ প্রতিবেদন পেতে আদালতে আবেদনের কথা বলেছিল।’

সূত্রে জানা গেছে, গত ২০ মার্চ তনুর লাশ কুমিল্লার ময়নামতি সেনানিবাসের বাসার কাছের জঙ্গল থেকে উদ্ধার করা হয়। ২১ মার্চ তনুর লাশের প্রথম ময়নাতদন্ত হয়। প্রথম ময়নাতদন্তে তনুকে ধর্ষণের আলামত ও হত্যার কারণ জানা যায়নি বলে উল্লেখ করা হয়। দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত ও ডিএনএর আলামত সংগ্রহের জন্য ৩০ মার্চ তনুর লাশ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়। এদিকে ডিএনএ প্রতিবেদনে তনুর কাপড়ে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে বলে ১৬ মে জানায় সিআইডি। সিআইডি থেকে ডিএনএ প্রতিবেদন পেতে আবেদন করে মেডিক্যাল বোর্ড। তবে সিআইডি জানায়, এ প্রতিবেদন আদালত থেকে নিতে হবে। এ নিয়ে কয়েক দিন ধরে দুই সংস্থার মধ্যে রশি টানাটানি চলছে।