মেইন ম্যেনু

ডিএমপিতে জুন মাসে শ্রেষ্ঠ হলেন যারা

পুলিশি কাজে দক্ষতা ও নগরবাসীর কাঙ্খিত সেবা প্রদানের জন্য প্রতিমাসে শ্রেষ্ঠদের পুরুষ্কৃত করেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সম্মানিত কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া বিপিএম, পিপিএম। প্রতি মাসের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় এ পুরুষ্কার তুলে দেন তিনি। ১৬ জুলাই শনিবার ডিএমপি হেডকোয়ার্টার্সের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় ভালো কাজের স্বীকৃতি হিসেবে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের হাতে নগদ অর্থ পুরস্কার তুলে দেন ডিএমপি’র কমিশনার।

এ মাসে মহানগরীর শ্রেষ্ঠ পুলিশ বিভাগ নির্বাচিত হয়েছে মিরপুর বিভাগ। শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন এবিএম জাকির হোসেন (পল্লবী জোন), শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক (অফিসার ইনচার্জ) মোঃ মাহবুবে খোদা, তুরাগ থানা, শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ আসলাম উদ্দিন, কাফরুল থানা, শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশনস্) শেখ মোঃ শাহআলম, পল্লবী থানা , শ্রেষ্ঠ এসআই যৌথভাবে এসআই/মোঃ মাসুদুর রহমান, মিরপুর থানা ও এসআই/কে এম আজিজুর রহমান, যাত্রাবাড়ী থানা, শ্রেষ্ঠ এএসআই যৌথভাবে এএসআই/১৪৭৪ হেলাল উদ্দিন, মতিঝিল থানা ও এএসআই/ মোঃ হাচেন মিয়া, তেজগাঁও থানা।

শ্রেষ্ঠ এনসিও/কনষ্টেবল হয়েছে কং/ ১৪৮৬৬ মোঃ শহিদুল ইসলাম, তুরাগ থানা, শ্রেষ্ঠ অস্ত্র উদ্ধারকারী অফিসার এসআই/মোঃ মাসুদুর রহমান, মিরপুর থানা, শ্রেষ্ঠ বিস্ফোরক উদ্ধারকারী অফিসার, এসআই/ মোঃ শাহজাহান মন্ডল, শেরেবাংলা নগর থানা, শ্রেষ্ঠ মাদকদ্রব্য উদ্ধারকারী অফিসার এসআই/মোঃ মাসুদুর রহমান, মিরপুর থানা, শ্রেষ্ঠ চোরাই গাড়ী উদ্ধারকারী অফিসার এসআই/ মোঃ মমিনুল হক, শাহবাগ থানা, শ্রেষ্ঠ ওয়ারেন্ট তামিলকারী অফিসার যৌথভাবে এএসআই/ ১৪৭৪ মোঃ হেলাল উদ্দিন, মতিঝিল থানা, এসআই/ শেখ শাহনুর রহমান, গুলশান থানা।

গোয়েন্দা ও অপরাধতথ্য বিভাগে শ্রেষ্ঠ বিভাগ যৌথভাবে, গোয়েন্দা ও অপরাধতথ্য (পূর্ব) এবং গোয়েন্দা ও অপরাধতথ্য (পশ্চিম) বিভাগ, শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার যৌথভাবে মুকিত সরকার, ওয়ারী জোনাল টিম, ডিবি-পূর্ব বিভাগ এবং হাসান আরাফাত,বিপিএম,পিপিএম, রমনা জোনাল টিম, ডিবি- দক্ষিণ বিভাগ, চোরাই গাড়ি উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিম নিশাত রহমান মিথুন, সিনিঃ সহকারী পুলিশ কমিশনার, ডিবি- উত্তর বিভাগ, অস্ত্র উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিম, সাইফুল্লাহ মোঃ নাছির, সিনিঃ সহকারী পুলিশ কমিশনার, পল্লবী জোনাল টিম, ডিবি-পশ্চিম বিভাগ, শ্রেষ্ঠ বিস্ফোরক উদ্ধারকারী টিম, মাঈনুল ইসলাম, পিপিএম, সিনিঃ সহকারী পুলিশ কমিশনার, ডেমরা জোনাল টিম, ডিবি-পূর্ব বিভাগ, মাদকদ্রব্য উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিম, মুকিত সরকার, ওয়ারী জোনাল টিম, ডিবি-পূর্ব বিভাগ, জঙ্গী গ্রেফতারে শ্রেষ্ঠ টিম, হাসান আরাফাত,বিপিএম,পিপিএম সিনিঃ সহকারী পুলিশ কমিশনার, রমনা জোনাল টিম, ডিবি-দক্ষিণ ও অজ্ঞান/মলম পার্টির গ্রেফতারে শ্রেষ্ঠ টিম মোঃ স্নিগ্ধা আখতার পিপিএম, সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার, ডিবি পূর্ব বিভাগ।

ট্রাফিকের শ্রেষ্ঠ বিভাগ, ট্রাফিক-উত্তর বিভাগ , শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার, রহিমা আক্তার লাকী, বাড্ডা ট্রাফিক জোন, শ্রেষ্ঠ ট্রাফিক ইন্সপেক্টর, মোঃ নিজাম উদ্দিন, শেরেবাংলা নগর ট্রাফিক জোন ও শ্রেষ্ঠ সার্জেন্ট আব্দুল্লাহ আল মামুন, নিউমার্কেট ট্রাফিক জোন।

বিট পুলিশিং এ শ্রেষ্ঠ বিভাগ, মতিঝিল বিভাগ, বিট পুলিশিং এ অংশ গ্রহণকারী এডিসি মধ্যে শ্রেষ্ঠ হয়েছেন, এডিসি (মতিঝিল বিভাগ) মোহাম্মদ তারিক বিন রশিদ,পিপিএম।

বিট পুলিশিং এ অংশ গ্রহণকারী সহকারী পুলিশ কমিশনারদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ হয়েছেন, এবিএম জাকির হোসেন, সিনিঃ সহকারী পুলিশ কমিশনার,পল্লবী জোন, এবিএম জিয়াউল করিম, সিনিঃ সহকারী পুলিশ কমিশনার, ক্যান্টনমেন্ট জোন ও মোহাম্মদ নুর আলম, সিনিঃ সহকারী পুলিশ কমিশনার, খিলগাঁও জোন।

বিট পুলিশিং এ অংশ গ্রহণকারী অফিসার ইনচার্জদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ হয়েছেন, মোঃ আবু বকর সিদ্দিক, পিপিএম(বার), শাহবাগ থানা, মোঃ আঃ কুদ্দুস ফকির, সবুজবাগ থানা, শেখ সিরাজুল হক, উত্তরখান থানা, ভূঁইয়া মাহবুব হাসান, মিরপুর থানা।

এছাড়াও মামলার রহস্য উদঘাটনের জন্য মোহাম্মদ পুর জোনের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ওয়াহিদুল ইসলাম, সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার মোঃ হাফিজ আল ফারুক, সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ প্রতিরোধ টিমের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার মোঃ নাজমুল ইসলাম, ধানমন্ডি মডেল থানার এসআই মোঃ নুর হোসেন, সিসি ক্যামেরা স্থাপনে অবদানের জন্য গুলশান জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার মোঃ রফিকুল ইসলাম, ভুয়া ডিবি গ্রেফতারের জন্য সোয়াটের সহকারী পুলিশ কমিশনার এস এম জাহাঙ্গীর হাছান, ডাকাত গ্রেফতারের জন্য গেন্ডারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী মিজানুর রহমান, ক্লুলেস মামলার রহস্য উদ্ঘাটন ও আসামী গ্রেফতারের জন্য তুরাগ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) কাজী মিজানুর রহমান ও যাত্রাবাড়ি থানার এসআই বিলাল আল আজাদ বিশেষ পুরস্কার পেয়েছেন।