মেইন ম্যেনু

ডিমলায় ১৩ জুয়াড়ী আটক

হামিদা আক্তার বারী, ডিমলা করেসপন্ডেট, নীলফামারী : গতকাল ২২ আগষ্ট সোমবার সন্ধায় নীলফামারীর ডিমলা থানা পুলিশের হাতে পৃথক দুইটি স্থান থেকে ১৩ জন জুয়াড়ীকে আটক করা হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। জানা গেছে, উপজেলার পূর্ব ছাতনাই ইউনিয়নের ছাতনাই কলোনী বাজারের শ্রমিক অফিসে স্থানীয় জুয়াড়–রা দীর্ঘদিন ধরে জুয়ার আসর বসিয়ে জুয়া খেলে আসছিল। ঘটনার দিন স্থানীয় সচেতন মহলের মৌখিক অভিযোগের ভিক্তিতে ডিমলা থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে সন্ধায় ৫ জুয়াড়ীকে জুয়া খেলাবস্থায় পেয়ে তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ সময় কমপক্ষে আরো ১০/১২ জন জুয়াড়– জুয়ার আসর থেকে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে। আটককৃতরা হলেন ছাতনাই কলোনী গ্রামের মৃত বাসু মিয়ার পুত্র তেজা (৫০), মৃত মহির উদ্দিনের পুত্র জুয়েল (৩৮), মৃত মানিক মিয়ার পুত্র সুলতান (৪৫), ও মৃত কামাল হোসেনের পুত্র সেবু মিয়া (৪৫) ও আশরাফের পুত্র আবু বক্কর সিদ্দিক (৩৮)। এদিকে রাত ৮.৩০ মিনিটে গোপন সংবাদের ভিক্তিতে অভিযান চালিয়ে উপজেলার সদরের জাতীয় পার্টি অফিস থেকে আরো ৮ জুয়াড়–ীকে আটক করেন পুলিশ। আটককৃত জয়াড়ুরা হলেন-দক্ষিন তিতপাড়া গ্রামের জহুর”ল হকের পুত্র আজিজুল (৩০), দেলোয়ারের পুত্র মজনু (২৮), আঃ মজিদের পুত্র জামিয়ার (৩৬), দক্ষিন সুন্দর খাতা গ্রামের ইব্রাহিমের পুত্র শেখ ফরিদ(২৫), পোষ্ট অফিস মোড়ের সিদ্দিকুর রহমানের পুত্র শহিদুল ইসলাম (৪৪), বাবুর হাট গ্রােিমরর মৃত মোফাজ্জলের পুত্র বাবুল হোসেন (৩৬), মৃত সারদা রায়ের পুত্র বাবলু রায় (৩৫) ও মৃত সহির উদ্দিনের পুত্র লেবু মিয়া (৩৬)। ডিমলা থানা পুলিশের এসআই খোরশেদ,এসআই সাহাবুদ্দিন, এসআই সফিয়ার রহমান, এসআই আঃ লতিফ, এসআই স্বজল রায়সহ আরো সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান চালিয়ে উলে¬খিত জুয়াড়–দের গ্রেফতার করেন। এ ঘটনার পর পরেই স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল এসব জুয়াড়ীদের ছাড়িয়ে নিতে জোড় প্রচেষ্টাসহ বিভিন্ন তদবির করছেন বলেও একটি নির্ভর য্গ্যো সূত্র জানিয়েছে। এ ব্যাপারে ডিমলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন আটককৃত জুয়াড়ীদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তাদেরকে থানা-হাজতে আটক রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে।