মেইন ম্যেনু

ডিম ভাঙার পর ডিম থেকে বাচ্চা ফুটানোর অভিনব পদ্ধতি! দেখুন ভিডিওসহ…

ডিমের খোসা থেকে এর কুসুম এবং সাদা অংশ বের করে কিভাবে বাচ্চা ফুটানো যায় তার একটি পদ্ধতি আবিষ্কার করেছে জাপানের একদল স্কুল শিক্ষার্থী। একটি টেলিভিশন অনুষ্ঠানে তারা তাদের সেই আবিষ্কারটি উপস্থাপন করেছে। তাদের আবিষ্কৃত পদ্ধতিতে কিভাবে মুরগির বাচ্চা ফুটানো যায় তার একটি ভিডিও ইউটিউবে আপলোড করার পর তা ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে।

হাঁস এবং মুরগির বাচ্চা ফুটানোর জন্য ওই শিক্ষার্থীরা ডিমের খোলসের বাইরে বাচ্চা ফুটানোর পদ্ধতি ‘ইন-ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন’ ব্যবহার করেছেন। ভিডিওতে দেখা যায়, প্রথমে শিক্ষার্থীরা ডিমের ভেতর থেকে কুসুম এবং সাদা অংশ বের করে এনে একটি প্লাস্টিকের কাপে রেখেছে।

2016_06_08_21_54_34_Z4uOzv1SvPNsEzjqAZWGTsqOra2qmI_original

এরপর তারা সেটিকে একটি পলিথিনের কাপড় দিয়ে ঢেকে দেয়। মেশিনের ভেতর নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় রাখার তিনদিন পর কুসুমের ভেতর মুরগির বাচ্চার হৃদপিণ্ড তৈরি হতে থাকে। পাঁচ দিনের মধ্যে বাচ্চাটি একটি পূর্ণাঙ্গ রূপ ধারণ করতে থাকে এবং ২১তম দিনে গিয়ে একটি পরিপূর্ণ বাচ্চা হিসেবে তা ফুটে বের হয়।

এই কাজটির জন্য বেশ খটুনি খাটতে হয়েছে শিক্ষার্থীদের। ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থেকে প্রক্রিয়াটি পর্যবেক্ষণ করতে হয়েছে তাদের।