মেইন ম্যেনু

ড. ইউনূসের ছবিতে ছাত্রলীগের অগ্নিসংযোগ

পাবনার চাটমোহরের গ্রামীণ ব্যাংকের কোনো ব্রাঞ্চ অফিসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি না টাঙানোয় বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে উপজেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ব্যাংকের বাসস্ট্যান্ড শাখার সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন তারা। এসময় ড. মুহাম্মদ ইউনূসের ছবিতে অগ্নিসংযোগ করেন তারা।

একইসঙ্গে অফিসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি টাঙানোর জন্য ২৪ ঘন্টার আলটিমেটাম এবং গ্রামীণ ব্যাংকের এমডির পদত্যাগ দাবি করা হয়।

এ সময় ব্যাংকের কর্মকর্তা- কর্মচারীরা অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন।

জানা গেছে, দুপুর ১টার দিকে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল আলিমের নেতৃত্বে শতাধিক নেতাকর্মী পৌর শহরের বাসষ্ট্যান্ড শাখায় গিয়ে কর্মকর্তাদের শেখ হাসিনার ছবি টাঙানোর জন্য আলটিমেটাম দেন তারা। এসময় অফিসের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন নেতাকর্মীরা।

সমাবেশে আব্দুল আলিম গ্রামীণ ব্যাংকের এমডির পদত্যাগ দাবি করে তারা বলেন, ২৪ ঘন্টা সময় দেয়া হলো। এর পরও যদি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি টাঙানো না হয় কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।

এ সময় অফিসে ঝোলানো ড. ইউনূসের ছবি নামিয়ে তাতে অগ্নিসংযোগ করে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

চাটমোহর বাসষ্ট্যান্ডে গ্রামীণ ব্যাংক ব্রাঞ্চ অফিসের ম্যানেজার মঞ্জু আলম বলেন, ছবি টাঙানোর ব্যাপারে আমাদের অফিসিয়ালি কোনো নির্দেশনা নেই। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অফিসে এসেছিল। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

চাটমোহর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মির্জা রেজাউল করিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি না টাঙানো খুব দুঃখজনক ব্যাপার।

চাটমোহর থানার ওসি সুব্রত কুমার সরকার বলেন, বিষয়টি শুনেছি। গ্রামীণ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ কিছু জানায়নি।