মেইন ম্যেনু

ড. খোন্দকার আব্দুল্লাহ জাহাঙ্গীর (রহ.)’র জীবন ও কর্ম শীর্ষক আলোচনা সভা

গতকাল ১৯ মে’১৬ সন্ধ্যায় ঢাকাস্থ আইটিভি টোয়েন্টিফোর-এ আয়োজিত কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক, বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, আইটিভি টোয়েন্টিফোর এর উপদেষ্টা ও রিসোর্স পার্সন প্রফেসর ড. খোন্দকার আব্দুল্লাহ জাহাঙ্গীর (রহ.)’র জীবন ও কর্ম শীর্ষক: আলোচনা সভা ও দু’য়া মুনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। আইটিভি টোয়েন্টিফোর’র ইসলামী অনুষ্ঠানের কো-অর্ডিনেটর বিশিষ্ট মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মুহাদ্দিস মাহমুদুল হাসান এর সঞ্চালনা এবং টিবিএন টোয়েন্টিফোর এর হেড অব নিউজ শরীফুল ইসলামের তত্ত্বাবধানে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, গবেষক ও আলেমে দ্বীন, ইসলামী বিশ্ব বিদ্যালয়’র আল কোরআন অ্যান্ড স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. হাফেজ এ বি এম হিযবুল্লাহ।

সভার শুরুতে পবিত্র কুরআন তিলাওয়াত করেন মাওলানা আবুল কালাম আজাদ আল-আযহারী। সভায় উপস্থিত থেকে আলোচনা করেন সেন্ট্রাল শরীয়াহ বোর্ডের সেক্রেটারি জেনারেল একিউএম ছফিউল্লাহ আরিফ, ছারছিনা দরবার শরীফের ছোট পীর মাওলানা আরিফ বিল্লাহ সিদ্দীকী, মুফাস্সসিরে কুরআন মাওলানা জামাল উদ্দীন, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মুফতি মুহাম্মদ যাকারিয়া, শিক্ষক ও কলামিস্ট মুহাম্মদ আবদুল কাহহার, “আলোকিত জ্ঞানী ২০১৫” আসরের চ্যাম্পিয়ন শাহাদাৎ হুসাইন খান ফয়সাল। এছাড়াও সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন মুহাম্মদ নুরুল্লাহ মাহদী। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, ‘আমি দীর্ঘ সময় পেয়েও কিছুই করতে পারিনি, কিন্তু সহকর্মী আবদুল্লাহ জাহাঙ্গীর অল্প সময়ে অধিককাজ করেছেন’।

সভায় অন্যান্য বক্তারা বলেন, ড. খোন্দকার আব্দুল্লাহ জাহাঙ্গীর শুধু একটি নামই নয়; বরং গবেষণা প্রতিষ্ঠান বললেও হয়তো কম বলা হবে। আব্দুল্লাহ স্যার অসংখ্য ত্রুটিপূর্ণ মানুষের রুহের ওস্তাদ। মানুষের ঈমানকে পরিশুদ্ধকারী মহান চিকিৎসক। শিরক, বিদয়াত থেকে মুক্ত হয়ে পরিপূর্ণ মানুষ হওয়ার জন্য তিনি আজীবন পথ দেখিয়েছেন। প্রত্যেকের ঈমানকে বিশুদ্ধ করতে তার লেখা বইগুলো সংগ্রহ করে তা ব্যক্তি জীবনে আমলের পাশাপাশি তার লেখনি ও চিন্তাধারাকে এগিয়ে নিতে আহবান জানানো হয়। বিশেষ করে “হাদিসের নামে জালিয়াতি: প্রচলিত মিথ্যা হাদীস ও ভিত্তিহীন কথা”এবং “আকিদা” নামক বইগুলো বিশুদ্ধ ঈমানের পরিচয় বহন করে বলে বক্তারা মনে করেন। দ্বীনের দাওয়াতি কাজকে আরো সম্প্রসারণে সুন্নাতে উদ্ভাসিত জীবনের জন্য তাঁর প্রতিষ্ঠিত ‘আসসুন্নাহ ট্রাস্ট’কে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করারও আহবান জানানো হয়। পরিশেষে দুয়া-মুনাজাতের মাধ্যমে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।