মেইন ম্যেনু

ড. জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা প্রত্যাহার

আদালত অবমাননার অভিযোগে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের পরিচালক ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিরুদ্ধে জারি করা গ্রেপ্তারি পরোয়না প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে।

আজ রবিবার বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল-২ এ আদেশ দেন। গত বৃহস্পতিবার ট্রাইব্যুনাল এই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

ট্রাইব্যুনালের ভারপ্রাপ্ত ডেপুটি রেজিস্ট্রার মো. আফতাবুজ্জামান বলেন, এর আগে জাফরুল্লাহ চৌধুরী চেম্বার আদালতের স্থগিতাদেশ ও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা প্রত্যাহার চেয়ে আবেদন করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে ট্রাইব্যুনাল এ আদেশ দেন।

এর আগে জরিমানার ওপর চেম্বার আদালতের দেওয়া স্থগিতাদেশের নথি দাখিল করে ট্রাইব্যুনালের জারি করা গ্রেপ্তারি পরোয়ানা প্রত্যাহারের আবেদন করেন ড.জাফরুল্লাহ।তিনি সকালে ট্রাইব্যুনালে হাজির হয়ে রেজিস্ট্রারের কার্যালয়ে এই আবেদন জমা দেন।

ব্রিটিশ নাগরিক ডেভিড বার্গম্যানের সাজায় উদ্বেগ প্রকাশ করে ‘অবমাননাকর’ বিবৃতি দেওয়ায় জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে এক ঘণ্টা কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে রাখার শাস্তির পাশাপাশি ৫ হাজার টাকা জরিমানা করে ট্রাইব্যুনাল। আদেশে বলা হয়, এক সপ্তাহের মধ্যে জরিমানা না দিলে তাকে একমাস জেল খাটতে হবে।

কিন্তু বিচার মেনে জরিমানা না দেওয়ায় গত ১৮ জুন ট্রাইব্যুনাল-২ জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে গ্রেপ্তারে ওই পরোয়ানা জারি করে।

অবশ্য তার আগেই ট্রাইব্যুনালের দেওয়া জরিমানার আদেশের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার আদালতে গিয়ে স্থগিতাদেশ পান এই চিকিৎসক।