মেইন ম্যেনু

ঢাকার যানজট আরো ভয়াবহ হবে

রাজধানীর যানজটের বিষয়ে প্রশ্ন রেখে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন বলেছেন, ‘যানজট নিরসনের দায়িত্ব কার? এটাতো ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের মূল দায়িত্ব। এরপরও নগরবাসীর ভোগান্তি লাঘবে আমরা দুই মেয়র কাজ করছি।’

রোববার সন্ধ্যায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউ মিলনায়তনে ‘ট্রাফিক কনজেসশান ইন ঢাকা সিটি : ইস্যুজ, চ্যালেঞ্জেস অ্যান্ড দ্যা ওয়ে ফরওয়ার্ড’ শীর্ষক এক সেমিনারে তিনি এ কথা জানান।

সাঈদ খোকন বলেন, ‘মেট্রোরেলের জন্য বর্তমানে ঢাকা শহরে রাস্তা যে খুঁড়োখুড়ির কাজ চলছে এতে করে জনগণের চলাচলে ভোগান্তি সৃষ্টি হচ্ছে। সৃষ্টি হচ্ছে যানজটের। তাই মেট্রোরেলের জন্য শুক্র ও শনিবার রাস্তা খুঁড়োখুড়ির কাজ করতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছি। ঢাকায় মেট্রোরেল স্থাপনের কাজ শুরু হলে যানজট পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করবে। এই পরিস্থিত মোকাবেলায় এখনই বসে তা নিয়ন্ত্রণের সিদ্ধান্ত নেয়া জরুরি।’

মেয়র বলেন, ‘যানবাহনের জন্য ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ (ডিটিসিএ) রয়েছে। এছাড়া রাজউক, ওয়াসাসহ আরো অনেক সংস্থা রয়েছে রাজধানীর উন্নয়নে। কিন্তু এসব সংস্থার মধ্যে সমন্বয়ের একেবারেই অভাব রয়েছে। নগরীর জন্য যখন কোনো প্ল্যান করা হয় তখনই আমরা সমন্বয়হীনতা দেখি। অনেক সেমিনার হয় কিন্তু সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষত্রে পারি না। এজন্য আমি খুব দুর্চিন্তার মধ্যে রয়েছি।’

এসময় তিনি প্রশাসনকে বিকেন্দ্রিকরণের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান। একইসঙ্গে ঢাকার উপর চাপ কমাতে তার আশপাশের শহরগুলোকে উন্নয়ন ও যোগাযোগ ব্যবস্থা বাড়ানোর তাগিদ দেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। এতে বক্তব্য দেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক, রাজউকের সাবেক চেয়ারম্যান প্রকৌশলী নুরুল হুদ, বুয়েট অধ্যাপক আ ফ ম সাঈফুল আমিন, ডিএনসিসির প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাঈদ আনোয়ারুল ইসলাম প্রমুখ।