মেইন ম্যেনু

ঢাকার যানজট তাড়াতে তরুণদের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ!

রাজধানী ঢাকার যানজট কমানোর উদ্যোগ নিয়েছেন একদল তরুণ। তাদের এই উদ্যোগ সফল হলে যানজট অনেকাংশে কমে আসবে এবং জ্বালিনীও সাশ্রয় হবে। মাসে অন্তত একটি দিন ‘নো কার ডে’ পালন করার সেই দিনটিতে লোকজনকে নিজেদের ব্যক্তিগত গাড়ি রাস্তায় বের না করতে আহ্বান জানিয়েছেন তারা। আজ বৃহস্পতিবার থেকে প্রথম এই ‘নো কার ডে’ (No Car Day) পালন শুরু হচ্ছে।

দেশের সব বড় বড় কর্পোরেট অফিসে গিয়ে তাদের প্রধান কর্তাব্যক্তিদের অনুরোধ করেছেন এই তরুণরা। যাতে প্রতিষ্ঠানের অন্য কর্মকর্তাদের ব্যক্তিগত গাড়ি আনতে নিষেধ করা হয়।

এই উদ্যোগের নিয়েছেন যারা তাদের একজন বেসরকারি ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আরাফাত নোমান।

তিনি বলছেন, ‘প্রথমে অনেকেই হেসে উড়িয়ে দিয়েছিল। তখন তাদের বুঝিয়েছি খুব জরুরি না হলে বের না করতে অনুরোধ করেছি। এখানে কোনো জোরাজুড়ি নেই’।

এই উদ্যোগে কতটা সাড়া পাবেন বলে মনে করছেন? এমন প্রশ্নে আয়োজকরা বলছেন, তারা বেশ সাড়া পাচ্ছেন। ফেসবুকে অন্তত ১০ হাজার মানুষ এতে অংশ নেয়ার আগ্রহ দেখিয়েছেন। তবে তারা বলছেন, খুব জরুরি প্রয়োজন হলে ভিন্ন কথা।

তাদের এই উদ্যোগ সফল হলে মাসে অন্তত একদিন তারা নো কার ডে পালনের আহ্বান জানাবেন। এরপর থেকে তারা বুধবার নো কার ডে পালন করবেন।

তারা মনে করছেন, এই উদ্যোগ সফল হলে জ্বালানী সাশ্রয় থেকে শুরু করে ঢাকাবাসীর প্রধান কষ্টের কারণ যানজট অন্তত একদিন হলেও অনেকখানি কমে যাবে।

সেইসাথে গাড়ি ভাগাভাগি করে ব্যবহারের প্রবণতা তৈরিও তাদের উদ্দেশ্য। বাংলাদেশে এ ধরণের উদ্যোগ প্রথম হলেও ২০০৭ সালে চীনে প্রথম শুরু হয় ‘নো কার ডে’ পালনের উদ্যোগ। পরবর্তীতে ইউরোপের অনেক দেশেই এটা শুরু হয়।- বিবিসি