মেইন ম্যেনু

ঢাকায় পৌঁছেই লাগেজ বিড়ম্বনায় ওয়ালশ

তাকে স্বাগত জানাতে এবং ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করতে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার কিছুক্ষণ পর থেকেই হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জে সাজ সাজ রব। অপেক্ষমান বিসিবির কর্মকর্তারা।

যে কোন ক্রিকেট ব্যক্তিত্ব বাংলাদেশে আসলে তাকে স্বাগত জানানো ও বিদায় জানাতে যিনি থাকেন সর্বাগ্রে, সেই ওয়াসিম খানের এদিক ওদিক ছুটাছুটি, সারাক্ষণ কর্মব্যস্ততা। লাউঞ্জের বাইরে উৎসুক মিডিয়া কর্মীদের ভিড়।

টিভি ও প্রিন্ট মিডিয়ার ক্যামেরা ক্রু‘রা তাদের ক্যামেরা তাক করে ঠায় দাড়িয়ে। এই বুঝি হাসি মুখে বেরিয়ে আসলেন কিংবদন্তী কোর্টনি ওয়ালশ।

কিন্তু হায়! বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে দশটায়ও দেখা মিললো না ওয়ালশের। কি করে মিলবে? ক্যারিবীয় কিংবদন্তীর ঢাকায় প্রথমে ফ্লাইটেই বিড়ম্বনা এবং বিলম্ব। রাত সাড়ে আটটার দিকে যে ফ্লাইটের ঢাকা অবতরনের কথা, তা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের রানওয়ে স্পর্শ করে প্রায় ৫০ থেকে ৫৫ মিনিট পর।

রাত সোয়া নয়টায় বিমান বন্দরে পৌছায় বাংলাদেশের নতুন বোলিং কোচকে বহন করা ইতিহাদ এয়ারলাইন্সের নির্ধারিত ফ্লাইটটি। সেই সাত সমুদ্দুর-তেরো নদী ওপারের ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জ থেকে আসা। দীর্ঘ বিমান ভ্রমণ। জ্যামাইকা থেকে নিউইয়র্ক; নিউইয়র্ক থেকে আবুধাবি হয়ে ঢাকা।

এমনিতেই ক্লান্ত-অবসন্ন; কিন্তু বিমান থেকে নেমে পড়লেন উল্টো বিপাকে। ঢাকা পৌঁছেই লাগেজ বিড়ম্বনায় পড়লেন কোর্টনি ওয়ালশ। তাই ঢাকায় পৌঁছানোর এক ঘণ্টা পরও টিম বাংলাদেশের নতুন ফাস্ট বোলিং কোচের দেখা মেলেনি।

নতুন কর্মক্ষেত্রে যোগদানের রোমাঞ্চ নিয়ে বিমান থেকে লাউঞ্জে নেমে তাই খানিক বিব্রত এ ক্যারিবীয় বোলিং লিজেন্ড। শেষ পর্যন্ত লাগেজ পেতে পেতে কেটে গেল দেড় ঘন্টা। রাত ১০টা ৪৩ মিনিটে অবশেষে লাগেজ নিয়ে লাউঞ্জ থেকে বেরিয়ে আসলেন ওয়ালশ।

বিসিবি থেকে আগেই জানানো হয়েছিল, দীর্ঘ বিমান ভ্রমনে ক্লান্ত ওয়ালশ বিমান বন্দরের অবতরণ করার পর লাউঞ্জে তাৎক্ষনিকভাবে মিডিয়ার সঙ্গে কোন কথা বলবেন না।

তবুও ঢাকায় পা রাখার মুহুর্তে নতুন কোচের প্রত্রিক্রিয়া জানতে প্রচার মাধ্যেমের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সদস্য বিমান বন্দরে ছুটে গিয়েছিলেন।

কিন্তু তাদের সঙ্গে একটি কথাও বলেননি ওয়ালশ। শুধু হাত নেড়ে শুভেচ্ছা বিনিমিয়ের পর ওয়াসিম খানের সাথে যখন গাড়ীতে চেপে বসেন, ঘড়ির কাটা তখন প্রায় রাত ১০টা ৫০ মিনিট।

বিমান বন্দর থেকে তার রাতের গন্তব্য হোটেল রেডিসন। আপাততঃ এই পাঁচ তারকা হোটেলেই অবস্থান করবেন কোর্টনি ওয়ালশ।