মেইন ম্যেনু

ঢাকা উত্তর সিটির ৭০ শতাংশ বর্জ্য অপসারণ

রাজধানীতে চলছে কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণের কাজ। এখন পর্যন্ত ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) প্রায় ৭০ শতাংশ বর্জ্য অপসারণ করা সম্ভব হয়েছে। দাবি উত্তর সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষের।

বুধবার সকালেও রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় সিটি করপোরেশনের বর্জ্য অপসারণের তৎপরতা দেখা গেছে। আবার একই সময়ে ঈদের দ্বিতীয় দিনেও অনেকেই পশু কোরবানি করছেন।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের মেয়র এর আগেই ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণের ঘোষণা দিয়েছিলেন। তবে আজও নির্ধারিত স্থানের বাইরে পশু জবাই হওয়ায় সিটি করপোরেশনের লক্ষ্য ব্যাহত হতে পারে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ বিষয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা মঞ্জুরি মাওলা বলেন, ‘এখন পর্যন্ত উত্তর সিটির ৭০ শতাংশ বর্জ্য অপসারণ করতে সক্ষম হয়েছি। আশা করছি আমাদের নির্ধারিত ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই সকল বর্জ্য অপসারণ করতে সক্ষম হবো। আগামিকাল এ বিষয়ে আনুষ্ঠানকি বক্তব্য প্রদান করা হবে।’

কোরবানির পশু বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম তদারকি করতে ও নাগরিক সেবায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) পক্ষ থেকে সাতটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। যেখানে পশু জবাইয়ের পর বর্জ্য অপসারণের বিষয়ে ফোন করে সেবা নেওয়া যাবে।

দুই সিটি করপোরেশন সূত্রে জানা যায়, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন এলাকায় ৬৪৮টি এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকায় ৫০৪টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছিল। এবারে কুরবানির পশু জবাইয়ের জন্য ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্ধারিত স্থান ছিল এক হাজার ১৫২টি। এবারে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১২ হাজার ৪৮২ জন কর্মী কাজ করছে। কর্মীবাহিনীর পাশাপাশি বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের নিজস্ব আধুনিক বর্জ্যবাহী ট্রাক, ডাম্পার, পেলোডার, টায়ার ডোজার, প্রাইম মুভার, ট্রেইলর, এক্সকেভেটর ও চেইন ডোজার কাজ করছে।