মেইন ম্যেনু

ঢাকা-টঙ্গী রেললাইন নির্মাণে পরামর্শক নিয়োগ

ঢাকা-টঙ্গী ও টঙ্গী-জয়দেবপুর ডুয়েল গেজ রেললাইন নির্মাণের জন্য পরামর্শক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। ভারতের অর্থায়নে এ প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে সাড়ে ৩০ কোটি টাকা।

মঙ্গলবার দুপুরে রেলভবনে এ বিষয়ে একটি চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক রফিকুল আলম এবং পরামর্শক প্রতিষ্ঠান আরভী ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যাসোসিয়েট আর্কিটেকচার্স প্রাইভেট লিমিটেডের পরিচালক এম মার্থি চুক্তিতে সই করেন।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে রেলমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া রেল মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. ফিরোজ সালাহউদ্দিন, রেলের মহাপরিচালক আমজাদ হোসেন, রেলের ঊর্ধ্বতন কর্মকতা ও পরিমর্শক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে রেলমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক বলেন, ‘রেলের উন্নয়নে ভারতের অর্থায়নে এ পর্যন্ত ১২টি প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে ৬টি প্রকল্পের কাজ শেষ হয়েছে। আরো ৬টি প্রকল্পের কাজ চলমান রয়েছে।’

মুজিবুল হক বলেন, ‘ঢাকা-টঙ্গী সেকশনে ৩য় ও ৪র্থ ডুয়েল গেজ রেল লাইন নির্মাণের প্রকল্পটিও ভারতের অর্থায়নে হবে। ভারতের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানগুলো সফলতার সঙ্গে বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ শেষে করেছে।’ এই প্রকল্পের কাজ শিগগিরই সফলতার সঙ্গে শেষ হবে বলে মন্ত্রী আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ঢাকা-টঙ্গী সেকশনে ৩য় ও ৪র্থ ডুয়েল গেজ রেল লাইন নির্মাণ প্রকল্পে ৩০ কোটি ৫০ লাখ ৫৪ হাজার টাকা ব্যয় হবে। ভারতীয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান এক্সপোর্ট ইমপোর্ট ব্যাংক এ প্রকল্পে ঋণ দেবে। জয়েন্টভেঞ্চার কোম্পানি আরভী ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যাসোসিয়েট আর্কিটেকচার্স প্রাইভেট লিমিটেড এবং আয়েশা ইঞ্জিনিয়ার্স পরামর্শক প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করবে। চলতি বছরের জুলাই মাসে এ প্রকল্পের কাজ শুরু হবে এবং ২০১৮ সালের মার্চ মাসে শেষ হবে।