মেইন ম্যেনু

তনু মার্ডার কেস কোথায় গিয়ে শেষ হবে?

কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকায় নিহত সোহাগী জাহান তনুর কেস কোথায় গিয়ে শেষ সেটি নিয়ে সংষয় প্রকাশ করেছেন হাইকোর্টের অবসরে যাওয়া বিচারপতি শরিফ উদ্দিন চাকলাদার।

তিনি বলেন, তনু হত্যাকাণ্ড ঘটেছে একটি বিশেষ এলাকায়। যারা আইনকে নিয়ন্ত্রণ করেন তনু মার্ডার কেসে তাদের প্রছন্ন ছায়া দেখতে পাচ্ছি।

শনিবার দুপুরে সুপ্রিমকোর্টের শহীদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে বাংলাদেশ ল’ টাইমস আয়োজিত জাস্টিস টু দ্যা পিপলস শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ সংসয় প্রকাশ করেন।

বিচারপতি চাকলাদার সরকারকে উদ্দেশ করে বলেন, আইনকে নিয়ন্ত্রণ করবেন না। আইনকে তার পথে চলতে দিন।

সাংবাদিকদের সর্তক করে তিনি বলেন, বিচার বিভাগ নিয়ে বায়াস্ট হয়ে লিখবেন না। বিচার বিভাগ সম্পর্কে মানুষের খারাপ ধারণা সৃষ্টি হয় সংবাদ পত্রে এমন কিছু লেখা উচিত নয়।

তিনি বলেন, আমাদের পাশে ইন্ডিয়ার মত একটি দেশ। সীমান্তের কাটাতারে যেখানে ফেলানীর মত লাশ প্রতিদিন ঝুলে থাকে। সেখানে বিভক্ত জাতি দিয়ে কিছু হবে না। এসময় তিনি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করতে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানান।

বিচারক নিয়োগ প্রসেঙ্গ বলেন, এমন ব্যক্তিকে বিচারক নিয়োগ করা উচিত কিছুটা হলেও যেন তিনি নিরপেক্ষ থাকেন এবং সে যেন কোন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিত্ব না করে জাতির প্রতিনিধিত্ব করেন।

অ্যাডভোকেট আয়েশা জেবিনের সভাপতিত্বে সেমিনারে কী-নোট উপস্থাপন করেন হাইকোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি মো: দেলোয়ার হোসাইন।

বাংলাদেশ ল’টাইমসের সম্পাদক অ্যাডভোকেট এস এন গোস্বামী, অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম, কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিষয়ের অধ্যাপক ড. শাহজাহান মন্ডল, কলামনিস্ট কাজী সিরাজ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি অধ্যাপক ড. তানজীন আক্তার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।



« (পূর্বের সংবাদ)