মেইন ম্যেনু

তবুও ইনিংস ব্যাবধানে হারলো পাকিস্তান!

প্রথম ইনিংসে আজহার আলির রেকর্ড ভঙ করা ডাবল সেঞ্চুরি। পাকিস্তানের সংগ্রহ ৪৪৩ রান। মেলবোর্নে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে তবুও এক ইনিংস এবং ১৮ রানের ব্যবধানে পরাজয়ের স্বাদ নিতে হলো মিসবাহ-উল হকের দল পাকিস্তানকে। প্রথম টেস্টের পর দ্বিতীয় টেস্টও জিতে নিয়ে ৩ ম্যাচের সিরিজ নিজেদের করে নিলো অস্ট্রেলিয়া।

পাকিস্তানের প্রথম ইনিংসে করা ৪৪৩ রানের জবাবে ওয়ার্নার এবং স্মিথের জোড়া সেঞ্চুরিতে রানের পাহাড় গড়ে অস্ট্রেলিয়াও। শেষ দিকে মিচেল স্টার্কও হয়ে ওঠেন ব্যাটসম্যান। তার ব্যাট থেকে আসে ৮৪ রানের অনবদ্য এক ইনিংস। শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেটে ৬২৪ রানে ইনিংস ঘোষণা করে অস্ট্রেলিয়া। পাকিস্তানের চেয়ে প্রথম ইনিংসে লিড নেয় ১৮১ রানের।

চতুর্থ দিনই ৬ উইকেটে ৪৬৫ রান করে লিড নিয়ে ফেলেছিল অসিরা। পঞ্চম দিন সকালে ব্যাট করতে নেমে ১০০ রানের থাকা স্মিথ অপরাজিত থেকে যান ১৬৫ রানে। ৭ রানে অপরাজিত থাকা মিচেল স্টার্ক আউট হন ৮৪ রান করে। টেস্ট ক্যারিয়ারে অবশ্য এ নিয়ে মোট ৮টি হাফ সেঞ্চুরি হয়ে গেলো তার।

১৮১ রান পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে অসি বোলারদের তোপের মুখে পড়ে পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানরা। প্রথম ইনিংসে ডাবল সেঞ্চুরিয়ান আজহার আলি এবং সরফরাজ আহমেদ করেন সর্বোচ্চ ৪৩ রান করে। ২৪ রান করেন ইউনিস খান। শেষ পর্যন্ত দিনের আরও প্রায় ৭ ওভার খেলা বাকি থাকতেই ১৬৩ রানে অলআউট পাকিস্তান। যে ম্যাচটি নিশ্চিত ড্র হওয়ার মত সে ম্যাচটিতে ইনিংস পরাজয়েই হারলো পাকিস্তান।

মূলতঃ অসি পেসার মিচেল স্টার্ক, জস হ্যাজলউডের আগুনমাখা বোলিং আর নাথান লায়নের ঘূর্ণিতেই কাবু হয়ে গেছে পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানরা। ৩৬ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন স্টার্ক। ৩৩ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন নাথান লায়ন। জস হ্যাজলউড নেন ২টি এবং জ্যাকসন বার্ড নেন ১টি উইকেট। ম্যাচ সেরা হলেন স্টিভেন স্মিথ।