মেইন ম্যেনু

তরমুজের ভেতর ভেজাল রং আছে কি না জেনে নিন

বাজারে উঠেছে নতুন তরমুজ। তবে অনেকেই তরমুজের ভেতর ইঞ্জেকশনের সহায়তায় রং দেওয়া হয়েছে কি না, তা নিয়ে চিন্তিত। সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের চেয়ারপারসন নীলুফার নাহারের তত্ত্বাবধানে এই রং নির্ণয়ের পদ্ধতি উদ্ভাবন করেছেন একই বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী তানহাউল ইসলাম ও আহসান হাবীব খন্দকার।

তরমুজের ভেতর রং রয়েছে কি না তা জেনে নিতে বাজার থেকে কেনা তরমুজের একটা ছোট ফালি কেটে নিতে হবে। এরপর এটিকে চিপে রস বের করে নিতে হবে। রসকে স্বচ্ছ গ্লাস বা লম্বা পাত্রে রেখে যতটুকু পরিমাণে তরমুজের রস নেওয়া হবে, ততটুকু পরিমাণে নারিকেল তেল দিতে হবে। এরপর দ্রবণটিকে এক মিনিট ঝাঁকিয়ে রেখে দিতে হবে।

পাঁচ মিনিট এভাবে রেখে দিলে পাত্রের দ্রবণের নিচের স্তর যদি পানির মতো সাদা হয়ে ওঠে, তাহলে বুঝতে হবে তরমুজে কোনো কৃত্রিম রং নেই। তরমুজে কৃত্রিম রং থাকলে নিচের স্তরের পানির রং লাল বা গোলাপি হয়ে যাবে। কারণ, কৃত্রিম রং তরমুজের পানিতে দ্রবীভূত হয় না।

গবেষকরা বলছেন, তরমুজে প্রাকৃতিক রং (লাইকোপিন) রয়েছে। এটা জৈব যৌগ, যা তেলের (জৈব দ্রাবক) সঙ্গে দ্রবীভূত হয়ে টিউবের ওপর হলুদ রং হয়ে ভাসে। আর বাকি তরমুজের পানি (অজৈব দ্রাবক) নিচের স্তরে পড়ে থাকে। কৃত্রিম রং তরমুজের লাইকোপিনের সঙ্গে দ্রবীভূত না হয়ে নিচের স্তরেই থেকে যায়।






মন্তব্য চালু নেই