মেইন ম্যেনু

তরুণীর ক্ষত-বিক্ষত পোড়া লাশ উদ্ধার

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে অজ্ঞাতনামা তরুণীর ক্ষত-বিক্ষত পোড়া লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

শুক্রবার বীভৎস লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্যে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

একই স্থান থেকে ২১ সেপ্টেম্বর অজ্ঞাতনামা এক শিশুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

ময়মনসিংহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএ নেয়াজী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, স্থানীয় রামগোপালপুর ইউনিয়নের বলেশ্বর বিলের ব্রিজের নিচে মাছ ধরতে এসে জেলেরা তেরপলে মোড়ানো লাশটি দেখতে পায়।

পরে খবর পেয়ে গৌরীপুর থানার এসআই মো. জাহাঙ্গীর আলম, এসআই মো. বদিয়ার রহমান ও মো.শরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল লাশটি উদ্ধার করেন।

এসআই মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, ধারণা করা হচ্ছে- ধর্ষণের পর ওই তরুণীকে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনা গোপন রাখতে লাশটিই পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

এসআই মো. বদিয়ার রহমান জানান, নিহত তরুণীর বয়স ২৫-৩০ বছর হতে পারে। গলায় জিআই তার প্যাঁচানো ছিল। তার দুটি হাত কেটে ফেলা হয়েছে।

এলাকাবাসীর ধারণা, ২১ সেপ্টেম্বর উদ্ধার হওয়া নিহত শিশুটির মায়ের লাশ হতে পারে এটি। কেউ অপকর্ম ধামাচাপা দিতে প্রথমে ওই শিশুকে হত্যা করে। পরে মাকেও হত্যা করে একই স্থানে ফেলে দিয়েছে।

রামগোপালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল আমিন জনি জানান, একই স্থানে পর পর দু’টি ঘটনায় এলাকায় নানা গুঞ্জন ছড়িয়েছে। পুলিশের তদন্ত ছাড়া প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে না।

গৌরীপুর থানার ওসি দেলোয়ার আহাম্মদ জানান, লাশটি চেনা যাচ্ছে না। ফরেনসিক রিপোর্ট, ডিএনও টেস্ট ও ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।