মেইন ম্যেনু

তরুণের অভিনব আবিস্কার এক আশ্চর্য ওড়না! যা পরলেই মানুষ অদৃশ্য হয়ে যায়…

এর মাহাত্ম্য টের পাওয়া যাবে এটি একবার গলায় ঝুলিয়ে ক্যামেরার সামনে দাঁড়ালে। কারণ এই স্কার্ফ পরিহিত অবস্থায় আপনি যদি ক্যামেরার সামনে দাঁড়ান তাহলে ক্যামেরাম্যান যতই শাটার টিপুট না কেন, ছবিতে ধরা পড়বে না আপনার চেহারা। ছবিতে দেখা যাবে শুধু স্কার্ফটি।

আপাত দৃষ্টিতে এই স্কার্ফ একেবারে সাধারণ, আর পাঁচটা সাধারণ স্কার্ফের মতোই। কিন্তু এর মাহাত্ম্য টের পাওয়া যাবে এটি একবার গলায় ঝুলিয়ে ক্যামেরার সামনে দাঁড়ালে। কারণ এই স্কার্ফ পরিহিত অবস্থায় আপনি যদি ক্যামেরার সামনে দাঁড়ান তাহলে ক্যামেরাম্যান যতই শাটার টিপুট না কেন, ছবিতে ধরা পড়বে না আপনার চেহারা। ছবিতে দেখা যাবে শুধু স্কার্ফটি।

কী মনে হচ্ছে, কল্পবিজ্ঞানের গল্প পড়ছেন? আদপে কিন্তু এই স্কার্ফের পিছনে রয়েছে বিশুদ্ধ বিজ্ঞান। দিল্লির ২৮ বছর বয়সি সেফ সিদ্দিকির তৈরি করা আইএসএইচইউ নামের এই স্কার্ফ আদপে অজস্র ক্রিস্টালের টুকরো দিয়ে তৈরি। ক্যামেরায় ছবি তোলার সময় অধিকাংশ সময়েই ব্যবহার করা হয় ফ্লাশের আলো। আর এই ক্রিস্টালগুলির কাজ হল ফ্ল্যাশের আলোকে সম্পূর্ণ প্রতিবিম্বিত করে আবার ক্যামেরার দিকেই ফিরিয়ে দেওয়া। ফলে যিনি এই স্কার্ফ পরে রয়েছেন, ফ্লাশের আলোয় তিনি নিজে বিন্দুমাত্র আলোকিত হন না। ছবিতে ধরা পড়ে শুধু তাঁর স্কার্ফটিই।

image (7)

সেফ জানিয়েছেন, এই স্কার্ফ তিনি তৈরি করেছেন মূলত সেলিব্রিটিদের কথা ভেবে। বিভিন্ন পার্টি বা অনুষ্ঠানে পাপারাৎজি বা গোপন ফোটোগ্রাফারদের তোলা ছবির কারণে প্রায়শই বিব্রত হতে হয় বিভিন্ন ক্ষেত্রের তারকাদের। সেক্ষেত্রে এই স্কার্ফ তাঁদের রক্ষাকবচ হিসেবে কাজ করতে পারে। কারণ এই ধরনের পার্টি বা অনুষ্ঠান প্রায় সব ক্ষেত্রেই অনুষ্ঠিত হয় বিকেল বা সন্ধেবেলা। আর ফোটোগ্রাফার হিসেবে সেখানে যাঁরা উপস্থিত থাকেন তাঁরাও সর্বদাই ফ্লাশ বা কৃত্রিম আলোর সাহায্যেই ছবি তোলেন। কাজেই এই স্কার্ফ সেলিব্রিটিদের ক্যামেরার হাত থেকে নিজেদের বাঁচাতে সাহায্য করবে। দাম অবশ্য একটু বেশি এই ম্যাজিক স্কার্ফের, ৩৮৮ ডলার, অর্থাৎ টাকার হিসেবে ২৬ হাজার টাকার একটু বেশি। তবে সেলিব্রিটিদের কাছে এই টাকা তো হাতের ময়লা।