মেইন ম্যেনু

তারিশিকে গলা কেটে হত্যা করে জঙ্গিরা

ঢাকার গুলশানে রেস্তোরাঁয় জঙ্গিদের হাতে ভারতীয় এক তরুণীর মৃত্যু হয়েছে। ঢাকার আমেরিকান স্কুলেই পড়াশোনা। জীবনের দীর্ঘসময় কেটেছে ঢাকাতেই। বর্তমানে আমেরিকার বার্কলেতে পড়াশোনা করছিলেন ভারতীয় তরুণী তারিশি জৈন। সম্প্রতি বার্কলে থেকে ফিরে ঢাকায় এসেছিলেন তিনি। কিন্তু, দেশে আর ফিরে যাওয়া হলো না।

শুক্রবার গুলশানের স্প্যানিশ রেস্তোরাঁ হলি আর্টিজানে গিয়েছিলেন তারিশি। আর সে সময়ই জঙ্গিরা তাঁদের জিম্মি করে। জঙ্গি এবং বাংলাদেশের সেনা কমান্ডোর লড়াই শেষে যে নিহতদের রেস্তোরাঁ থেকে বের করা হয়েছে তার মধ্যে তারিশিরও লাশ ছিল।

সেনাবাহিনী জানিয়েছে, চূড়ান্ত অপারেশন শুরুর আগেই কিছু তাঁদের হত্যা করেছিল জঙ্গিরা। তারিশিকে জঙ্গিরা গলা কেটে খুন করে। এক টুইটার বার্তায় সুষমা বলেন, ‘আমি অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি যে, ঢাকায় সন্ত্রাসীদের হাতে জিম্মি ভারতীয় তরুণী তারিশি নিহত হয়েছে।’ ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমি তারিশির বাবা সঞ্জীব জৈনের সঙ্গে কথা বলেছি এবং গভীর সমবেদনা জানিয়েছি।’

সুষমা জানান, তারিশি ‘আমেরিকান স্কুল ঢাকা’ থেকে লেখাপড়া শেষ করে ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ায় (বার্কলে) ভর্তি হন।