মেইন ম্যেনু

তারুণ্য ধরে রাখতে বিশ্বজুড়ে প্রচলিত অদ্ভুত ৯টি বিউটি ট্রিটমেন্ট!

বয়সের সাথে সাথে ত্বকের উজ্জ্বলতা হারাতে শুরু করে। চামড়া কুঁচকে যায়, বলিরেখা পড়ে, ত্বকে বয়সের ছাপ পড়াসহ আরও অনেক সমস্যা দেখা দেয়। আমরা সাধারণত ত্বকের এইসব সমস্যা দূর করতে পার্লারে যাই, ফেইস প্যাক ব্যবহার করি, নয়তো ক্রিম ব্যবহার করে থাকি। অথচ পৃথিবীতে কিছু মানুষ আছেন যারা তাদের বয়স ধরে রাখার জন্য অবলম্বন করে থাকে অদ্ভুত সব উপায়। ফিশ স্পা বলতে একটি বিউটি ট্রিটমেন্ট রয়েছে যেখানে একটা ছোট চৌবাচ্চার মধ্যে আপনার পা ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। সেখানকার রাখা অসংখ্য পরিমানে ছোট ছোট মাছ আপনার পা খুঁটে খুঁটে আপনার পায়ের ডেড স্কিন বা মরা কোষ বের করে দিয়ে থাকে! এমন অদ্ভুত কিছু বিউটি ট্রিটমেন্টের সন্ধান পাওয়া যায় alternet,boldsky এবং funtimesnews থেকে।

১। ফেস স্ল্যাপিং

স্ল্যাপিং অর্থাৎ চড় মারা। অনেকে বিভিন্ন বিউটি সেলুনে যান চড় খেতে! অদ্ভুত শোনালেও ত্বকের সৌন্দর্য রক্ষায় এই কাজটি অনেকেই করে থাকেন। বিউটি সেলুনে রীতিমতো ১০-১৫ মিনিটের এক একটি ফেস স্ল্যাপিং সেশন থাকে। যেখানে আপনার গালে চড় মারা, চিমটি কাটা হয়ে থাকে। এর ফলে বলিরেখা দূর হয় এবং মুখের উন্মুক্ত রোমকুপের সমস্যাও দূর হয়ে থাকে।

২। চুলে ষাঁড়ের বীর্য ব্যবহার

লন্ডনে হেয়ার প্যাকে ষাঁড়ের বীর্য ব্যবহার করা হয়। এটি লন্ডনে বেশ জনপ্রিয় হেয়ার ট্রিটমেন্ট। চুলের সৌন্দর্যের জন্য ব্যবহৃত নানা দ্রব্যের সঙ্গে ষাঁড়ের বীর্য মিশিয়ে চুলে লাগানো হয়। ষাঁড়ের বীর্যে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন থাকে যা চুলকে শক্ত করে ক্ষতিগ্রস্ত চুলকে ঠিক করে চুলকে ঝলমল কালো করে তোলে।

৩। কেঁচো ফেসিয়াল

প্রাচীনকালে ত্বকে বিষাক্ত সংক্রমণ কমাতে কেঁচোর প্রয়োগ করা হয়। এক্ষেত্রে কেঁচোকে ওযুধ হিসাবে ব্যবহার করা হয়। এই পদ্ধতিতে কেঁচো শরীরের বর্জ্য পদার্থ, বিষাক্ত পদার্থ শরীর থেকে বের করে দেয়। কেঁচোকে শরীরের উপর রাখা হলে তা শরীর থেকে রক্ত চুষে বের করে নেয়। ডেমি মুরের মতো জনপ্রিয় অভিনেত্রী সুন্দর ত্বকের জন্য এই অদ্ভুত বিউটি ট্রিটমেন্ট করিয়ে থাকেন।

৪। শুধুমাত্র বেগুনি রং এর ফল খাওয়া

এটি সত্য যে বেগুনি রঙের ফল যেমন ব্লুবেরি, আঙ্গুর এর আছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট আছে যা ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে থাকেন। কিন্তু কিছু মহিলা আছেন যারা শুধু মাত্র বেগুনি রং এর ফল খেয়ে থাকেন।

৫। কুমিরের মলের ব্যবহার

গ্রিস ও রোমে প্রাচীন কালে বিউটি ট্রিটমেন্ট হিসাবে কুমীরের মলের ফেসপ্যাক ব্যবহার করা হত। এই প্যাকটি এখনও কিছু কিছু দেশে প্রচলন রয়েছে।

৬। পাখির মল

পৃথিবীর সব অদ্ভুত বিউটি ট্রিটমেন্টের তালিকায় রয়েছে পাখির মলের ব্যবহার। পাপিয়া বা নাইট্যাঙ্গল পাখির মল ত্বকের পক্ষে খুব উপকারি। এদের মল মুখে লাগিয়ে ভাল করে ম্যাসাজ করা হয়, যা মুখের কালচে দাগ দূর করে ত্বকের উজ্জ্বল্যতা বৃদ্ধি করে থাকে। শুনলে অবাক হবেন ফুটবলার ডেভিড বেকহ্যামের স্ত্রী ভিক্টোরিয়া বেকহ্যাম এই বিউটি ট্রিটমেন্টটি নিয়মিতভাবে করিয়ে থাকেন।

৭। সাপের বিষ

সাপের বিষ মানুষের মৃত্যুর কারণ হতে পারে। কিন্তু এই সাপের বিষ কারোর কারোর বিউটি ট্রিটমেন্টে নিয়মিত ব্যবহার করা হয়ে থাকে। অনেকে মনে করেন সাপের বিষ ত্বকের চামড়া টানটান করে বলিরেখা দূর করে থাকে। ইসরাইলের নামকরা স্পা সেলুন Ada Barak এ ৮০ ডলারে এই ট্রিটমেন্ট করানো হয়ে থাকে।

৮। ভেড়ার ভ্রণের ব্যবহার

অনেকে নিজেদের যৌবন ধরে রাখতে ভেঁড়ার ভ্রূণের কোষ ইনজেকশনের মাধ্যমে শরীরের ভিতরে প্রবেশ করিয়ে থাকেন। গায়িকা ডেবি হ্যারি দীর্ঘদিন ধরে তারুণ্য ধরে রাখতে এই চিকিৎসা করিয়েছিলেন।

৯। শামুক ফেসিয়াল

ত্বক চর্চার নানা পদ্ধতির মধ্যে এটিও এখন নাকি বেশ জনপ্রিয়। তিনটি শামুক ২০ মিনিট ধরে আপনার মুখের উপর বসিয়ে দেওয়া হয়। শামুকের শ্লেষ্মা ত্বকের হারানো উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে নিয়ে আসে। বিশেষজ্ঞদের মতে শামুকের শ্লেষ্মায় ত্বকের উপযোগী প্রোটিন, অ্য়ান্টি-অক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিব্যাকটেরিয়া রয়েছে। যা ত্বকের বলিরেখা কমিয়ে ত্বকের তারুণ্যদীপ্ত উজ্জ্বলতা ধরে রাখে। এই ফেসিয়াল আপনার ত্বকের বয়স কমিয়ে থাকে অনেকখানি।