মেইন ম্যেনু

তাসকিনকে ক্রিকেটে আনা সেই বন্ধুটি এখন সিএনজি চালক!

বাবার কড়া নজরদারি ও শাসনে ছেলেবেলা কাটানো তাসকিনের ক্রিকেটে আসার পেছনে অবদান আছে ছোটবেলার এক বন্ধুর। অসময়ে খেলতে বের হওয়ায় রাগ করে তাসকিনের ব্যাট ভেঙে ফেলেছিলেন তার বাবা। এরপরতো মাঠে যাওয়াই বন্ধ হয়ে যায় তাসকিনের।

কিন্তু কাইয়ুম নামের এক বন্ধু তাসকিনকে নতুন করে অনুপ্রাণিত করেন। ক্রিকেটবিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকবাজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সেই ঘটনার কথা মনে করেন তাসকিন।

কাইয়ুমঃ চল, আবাহনী মাঠে চাই। টেনিস বল বাদ দিয়ে ক্রিকেট বলে খেলা শুরু করি।

তাসকিনঃ না রে, আমার পক্ষে যাওয়া সম্ভব না। তিন দিকেই আগেই বাবা আমার উপরে ব্যাট ভেঙ্গেছেন!

কাইয়ুমঃ কেন? চল চল। তোর বোলিং একশন খুব ভাল, তুই সুযোগ পেয়ে যাবি দেখিস।

তাসকিনঃ আরে না, কয়েকদিন পরেই আমার পরীক্ষা শুরু হবে, আমার যাওয়া হবে না।

তবে মুখে বন্ধুকে এ কথা বললেও মনে মনে ঠিকই বাবাকে রাজি করানোর ফন্দি এটেছিলেন তাসকিন। এরপর একদিন কৌশলে ঠিকই বাবার অনুমতি পেয়ে যান তাসকিন।

অথচ তাসকিনকে ক্রিকেট বলে খেলতে অনুপ্রাণিত করা সেই বন্ধুটি এখন নিজেই ক্রিকেটে নেই! আর জাতীয় দলে এসে তারিকা খ্যাতি পেয়ে গেলেও ছেলেবেলার বন্ধুকে ভুলে যাননি তাসকিন, ‘দুঃখের বিষয় হচ্ছে, যেই বন্ধুটি আমাকে সেদিন আবাহনী মাঠে খেলার কথা বলেছিল, সেই কাইয়ুম এখন সিএনজি চালায়। ও নিজেও খুব ভাল খেলোয়াড় ছিল। কিন্তু সুযোগের(দারিদ্র) অভাবে তাকে ক্রিকেট খেলা ছেড়ে দিতে হয়েছে। এখনো আমি যতটা পারি ওর পাশে থাকি।’

সূত্রঃ ক্রিকবাজ