মেইন ম্যেনু

তাসকিন-সানিকে ফেরাতে কলকাতায় মঙ্গলযজ্ঞ

খেলা যে সীমান্তের বাধা মানে না, তার প্রমাণ দিল ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের একদল ক্রিকেটপ্রেমী। বাংলাদেশের জনপ্রিয় বোলার তাসকিন আহমেদ ও আরাফাত সানির ওপর আইসিসি নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় এবার সরব হলেন কলকাতার ক্রীড়াপ্রেমীরা।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে কলকাতা বিমানবন্দরসংলগ্ন এলাকায় বাংলাদেশি তাসকিন ও সানিকে দলে ফেরানোর কামনায় হোমযজ্ঞ করা হলো। হিন্দুশাস্ত্র মতে, তাসকিন ও সানির ছবির সামনে পূজাপাঠ সেরে আগুন জ্বেলে হোমযজ্ঞ করে মঙ্গল কামনা করা হয়। এ হোমযজ্ঞে শামিল হন কলকাতার বহু ক্রিকেটপ্রেমী মানুষ। তাঁদের বক্তব্য, দেশ ও সীমান্তের কাঁটাতারের বেড়া নয়, তাঁরা চান ভালো ক্রিকেট খেলা। আর সেই ভালো খেলার দাবিতে তাসকিন ও সানির মতো বোলারদের ওপর থেকে যাতে আইসিসির খাঁড়া উঠে যায়, সেই কামনায় করা হলো এই মঙ্গলযজ্ঞ। কলকাতার রাধানাথ বোস লেনের স্পোর্টস লাভার্স অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে এ আয়োজন করা হয়।

অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক দিবাকর রায় বলেন, ‘আমরা দেশ-কাল, জাতি-ধর্ম বুঝি না। আমরা চাই ভালো খেলা উপভোগ করতে। সেখানে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশের জনপ্রিয় বোলার তাসকিন আহমেদ ও আরাফাত সানির ওপর আরোপ করা আইসিসির নিষেধাজ্ঞা যাতে অতিসত্বর উঠে যায়, সে কামনায় এই মঙ্গলযজ্ঞের আয়োজন।’

সংগঠনটির সভাপতি সন্তোষ কুমার চক্রবর্তী বলেন, ‘আমরা ক্রিকেট মাঠে ভালো লড়াই দেখতে চাই। বাংলাদেশ আমাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্র। ফলে বাংলাদেশের দুজন বোলারের ওপর আইসিসির যে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে, আমরা চাইছি সেই নিষেধাজ্ঞা উঠে গিয়ে খেলার ময়দানে ফিরে আসুন তাঁরা। আমরা খেলা উপভোগ করতে চাই। আর সে কারণেই তাসকিন ও সানিকে ক্রিকেট মাঠে ফিরিয়ে আনার কামনায় এই হোমযজ্ঞ।’

সহসভাপতি বিবেকানন্দ মজুমদার বলেন, ‘ভারত যেমন আমাদের কাছে গর্ব, তেমনি বাঙালি হিসেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট ভালো খেললে গর্বে আমাদের বুক ফুলে ওঠে।’

স্পোর্টস লাভার্স অ্যাসোসিয়েশন সদস্য বাণী চক্রবর্তী বলেন, ‘ক্রিকেটকে ভালোবেসে ভালো খেলা দেখার প্রত্যাশায় আমরা চাই তাসকিন ও সানি ফের ফিরে আসুক ক্রিকেট ময়দানে। আমরা চাই, আগামী দিনে বাংলাদেশ বিশ্বকাপ ক্রিকেটে সাফল্য নিয়ে উঠে আসুক।’

যজ্ঞের পুরোহিত গণেশ ব্যানার্জি জানান, হিন্দুশাস্ত্রের পুরো নিয়মরীতি মেনে এই হোমযজ্ঞ করা হয়েছে। প্রার্থনা করা হয়েছে আইসিসির নমনীয় মনোভাবে আগামী দিনে যাতে বাংলাদেশের দুই ক্রিকেটার ফের দলে ফিরে আসতে পারে।

হোমযজ্ঞের সময় সংস্থার সদস্যরা সমবেতভাবে স্লোগানও দিতে থাকেন ‘ব্যাক সানি-তাসকিন’ বলে। তাঁরা বুকে সানি ও তাসকিনকে দলে ফেরানোর দাবিসংবলিত পোস্টার সেঁটে স্লোগান দিতে থাকেন। এ সময় অনেকেই বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের জার্সি পরেছিলেন।