মেইন ম্যেনু

তিনটি কালভার্টের কারণে সীমাহীন দূর্ভোগ

জেলার জুড়ী উপজেলায় জুড়ী-ফুলতলা সড়কে তিনটি কালভার্ট নির্মাণের কাজ প্রায় তিন মাস আগে সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু এখনো সংযোগ সড়ক নির্মাণ হয়নি। এতে ফুলতলা ও সাগরনাল ইউনিয়নের প্রায় ৪০ হাজার লোক দুর্ভোগে পড়েছে।

সওজ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, প্রায় চার কোটি টাকা ব্যয়ে সংযোগ সড়কসহ জুড়ী-ফুলতলা সড়কের তিনটি, জুড়ী-বড়লেখা সড়কে একটি ও কুলাউড়া-চাতলাপুর সড়কে একটি কালভার্ট নির্মাণের কাজ পায় কুমিল্লার মেসার্স দেলোয়ার হোসেন বাবুল নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

গত বছরের (২০১৪) নভেম্বর মাসে পাঁচটি কালভার্টের নির্মাণকাজ শুরু হয়। কার্যাদেশ অনুযায়ী চলতি বছরের (২০১৫) ৩ মার্চের মধ্যে তা সম্পন্নের কথা ছিল। কিন্তু এপ্রিল মাসের মাঝামাঝি সময়ে শুধু কালভার্ট নির্মাণের কাজ সম্পন্ন হয়। এর পর সংযোগ সড়কের কাজ ফেলে রেখে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের নিয়োজিত শ্রমিকেরা চলে যান।

সওজ অধিদপ্তরের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মোঃ গোলাম রসূল বলেন, ঠিকাদারের গাফিলতির কারণে এ অবস্থা হয়েছে। দ্রুত সংযোগ সড়ক নির্মাণে তাঁকে একাধিকবার তাগিদ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তিনি অযথা সময়ক্ষেপন করছেন। লোকজনের দুর্ভোগ লাঘবে আপাতত বিকল্প সড়কটি সংস্কার করে দেওয়া হবে।

এ ব্যাপারে বক্তব্য জানতে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মালিক দেলোয়ার হোসেন বাবুলের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।



(পরের সংবাদ) »