মেইন ম্যেনু

তিন মাস ধরে স্বামীর লাশের উপর গোসল, স্ত্রী আটক, নেপথ্যে পরকীয়া

বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জে পরকীয়ার কারণে স্বামীকে হত্যা করে লাশের উপরেই একটানা তিন মাস গোসল করেছেন স্ত্রী ফাতেমা বেগম (৪০)। পুলিশ স্বামী হত্যাকারী ফাতেমা বেগমকে গ্রেপ্তার করেছে।

বুধবার রাত ১১টায় স্ত্রীর হাতে নিহত আলামীন শেখের (৫৫) গলিত লাশ মাটি খুঁড়ে উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, দক্ষিণ কুমারিয়াজোলা গ্রামের মৃত আইউব আলী শেখের ছেলে আলামীন শেখ ঢাকায় রিকশা চালাতেন। গত ১৬ মার্চ রাতে তিনি বাড়িতে যান। ওই রাতেই স্ত্রীর হাতে খুন হন তিনি। স্বামীকে হত্যার পর রাতেই ফাতেমা বেগম তার পরকীয়া প্রেমিক প্রতিবেশী শাহাজান শেখের (৫০) সহযোগিতায় লাশ গোসল খানায় নিচে মাটি চাপা দিয়ে রাখেন। এ হত্যার ঘটনা যাতে কারো নজরে না আসে সেজন্য ওই গোসলখানায়ই নিয়মিত গোসল করতেন স্বামীর হত্যাকারী ফাতেমা বেগম।

ফাতেমা বেগম জানান, ‘তার স্বামী আলামীন শেখ ঢাকায় রিকশা চালাতেন। ঘটনার দিন ১৬ মার্চ তিনি ঢাকা থেকে বাড়িতে যান। ওই রাতেই ঝগড়ার একপর্যায়ে ধারালো গুপ্তি স্বামীর বুকে বসিয়ে দেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই মারা যান আলামীন।

এদিকে, নিহত আলামীন শেখের ছেলে মোহাম্মদ আলী তার বাবার নিখোঁজের খবর জানিয়ে কেরানিগঞ্জ থানায় গত ২ এপ্রিল একটি সাধারণ ডায়েরি করেছিলেন।

মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম জানান, আলামীন শেখকে ৩ মাস আগেই হত্যা করে বাড়ির মধ্যেই কোথাও লাশ গুম করে রাখা হয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ অনুসন্ধান চালায়। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে আলামীনের স্ত্রী ফাতেমা বেগম তার স্বামীকে হত্যার কথা স্বীকার করে এবং লাশ গুম করে রাখার স্থান দেখিয়ে দেয়।