মেইন ম্যেনু

তিন যুগের পরও টেকনাফ সেন্টমার্টিনে পুলিশ ফাঁড়ি নির্মিত হয়নি

দেশী বিদেশী পযর্টকদের স্বপ্নের দ্বীপ সেন্টমার্টিনে জনগনের জানমালের নিরাপত্তায় নিয়োজিত পুলিশ বাহিনীর জন্য এখনো নির্মিত হয়নি পুলিশ ফাঁড়ি। ১৯৮০ সনে নির্মিত একটি পরিত্যাক্ত সাইক্লোন শ্লেটারের রুমে গাদাগাদি করে ১০ হতে ১২ জন সিপাহী ও অফিসার দিন যাপন করছে। বর্তমানে ঐ পুলিশ ব্যারাকের চতুর দিকে ভাঙ্গন শুরু হয়েছে ।

যা প্রতি রক্ষা বাঁধ নির্মান করা না গেলে ঐ পরিত্যাক্ত ভবনও রক্ষা করা কঠিন হয়ে পড়বে বলে স্থানীয়রা জানায়। যে ভবনে পুলিশ দিন যাপন করছে এবং জনগনের সেবা দিয়ে যাচ্ছে যদি বড় ধরনের দূর্যোগ হয় তাহলে যে বাহিনী জনগনের জানমাল রক্ষার জন্য দায়িত্ব পালন করে তাদের জানমাল রক্ষা করা কঠিন হয়ে পড়বে ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১৯৮২ বা ৮৩ সনে সেন্টমার্টিনে পুলিশ পাড়িঁ স্থাপিত হয়। এর পর হতে এ রির্পোট লিখা পর্যন্ত পুলিশ বাহিনীর জন্য কোন নতুন ভবন নির্মিত হয়নি। পুলিশ ফাড়িঁ পরিদর্শনে দেখা যায়, একটি পরিত্যাক্ত ভবনে তারা দিন যাপন করছে। নেই কোন বিদ্যুতের ব্যবস্থা, নেই কোন পানির ব্যবস্থা নির্বাসনে জেলের কদির মতো দিন যাপন করছে।

স্থানীয় লোকজন জানায়, এ দ্বীপে দেশের একেবারে উচ্চ মহল হতে আরম্ব করে নিচ মহলের লোকজন, জনপ্রতিনিধি, রাষ্ট্রের কর্ণধার পর্যন্ত ভ্রমন করে চলে যাচ্ছে। তাদেরকে সার্বক্ষনিক পাহারা দিচ্ছে এ পুলিশ বাহিনী। দেশের সকল স্থানে পুলিশদের জন্য নতুন নতুন থানা, নতুন ফাঁড়ি, নতুন গাড়ী ইত্যাদি করা হলেও সেন্টমার্টিনের পুলিশদের জন্য একটি ভবনও নির্মিত হচ্ছেনা কেন এলাকাবাসীর প্রশ্ন?। সেন্টমার্টিনের পুলিশ কি বাংলাদেশের পুলিশের অংশ নয় কি?