মেইন ম্যেনু

তীব্র যানজটে নাকাল রাজধানীবাসী

যানজটে স্থবির হয়ে পড়েছে রাজধানী। রাজপথে গাড়ির সারি, ফুটপাতেও ব্যস্ত মানুষের ছুটে চলা। জনপরিবহনে প্রচণ্ড ভিড়। তারপরও গন্তব্যে পৌঁছতে প্রাণান্ত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সবাই।

রাস্তার অবস্থা অসহনীয় পর্যায়ে। দুপুরের পর থেকে যেন থমকে যায় পুরো শহর। প্রতিটি সড়কে যানবাহনের লাইন।

এদিকে দেশে অব্যাহত গুপ্তহত্যা, সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, জঙ্গি তৎপরতা এবং দেশের শান্তি, গণতন্ত্র, স্থিতিশীলতা, উন্নয়নবিরোধী অপতৎপরতা ও চক্রান্তের প্রতিবাদে ১৪ দলের মানববন্ধন কর্মসূচির কারণে এ যানজট আরো তীব্র আকার ধারন করে।

রোববার সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, রাজধানীর মিরপুর-১০ নম্বর গোলচত্বর, আগারগাঁও, ফার্মগেট, শাহবাগ, নিউমার্কেট, পল্টন জাতীয় প্রেসক্লাব, মগবাজার, মালিবাগ, রামপুরাসহ আশপাশের এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

যানজটের কারণে মতিঝিল ও সচিবালয় থেকে অফিস শেষে অনেকেই হেঁটে বাড়ির পথে রওনা দিয়েছেন। কেউ কেউ বাসে চাপলেও দীর্ঘক্ষণ যানজটে আটকে থাকার পর গাড়ি থেকে নেমে হাঁটতে শুরু করেন।

কারওয়ান বাজারে সোহাগ নামের এক মোটরসাইকেল আরোহী বলেন, জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে কারওয়ান বাজারে আসতে তার দেড় ঘণ্টা লেগেছে। নিরুপায় হয়ে অনেকেই রাস্তার উল্টোদিক দিয়ে বাইক চালিয়ে আসতে হয়েছে।

প্রেসক্লাব থেকে মতিঝিল রোডে দেখা গেছে, দীর্ঘ সময় বাসের অপেক্ষায় থেকে রাস্তা হাঁটছেন অনেকেই।

রওনক হাসান নামের বেসরকারি ব্যাংকের এক কর্মকর্তা এই প্রতিবেদককে জানান, তীব্র যানজটের কারণে গাড়িতেই ইফতার করতে হবে মনে হচ্ছে। তাই একটা ঠাণ্ডা পানি কিনে রেখেছি।