মেইন ম্যেনু

ত্বকের যত্নে নারকেলে তেলের ৫ ব্যবহার

চুলের যত্নে তেলের ব্যবহার অপরিহার্য। যুগ যুগ থেকে চুলের যত্নে নারকেল তেল ব্যবহার হয়ে আসছে। নারকেল তেল কি শুধু চুলের জন্য উপকারি? একদমই না। ত্বকের যত্নেও নারকেল তেলের আছে কিছু জাদুকরী ব্যবহার। নারকেল তেল ত্বকের জন্যও বেশ উপকারি। ত্বকের যত্নে নারকেল তেলের কিছু ব্যবহার নিয়ে আজকের এই ফিচার।

১। হ্যান্ড স্ক্রাব

নরম হাত পাওয়ার জন্য স্ক্রাব করার প্রয়োজন পড়ে। এক্সফলিয়েট বা স্ক্রাব ত্বক থেকে মৃত চামড়া দূর করে দেয়। ১ চা চামচ নারকেল তেল, ১/৪ চা চামচ লবণ, ২ টেবিল চামচ মধু এবং কয়েক ফোঁটা লেবুর রস এবং ১/৪ কাপ চিনির গুঁড়ো একসাথে মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করুন। এটি হাতে ম্যাসাজ করে লাগান।

২। লিপবাম হিসেবে

নরম কোমল ঠোঁটের জন্য নারকেল তেলের লিপবামের তুলনা হয় না। প্রাকৃতিক উপায়ে ঠোঁট নরম কোমল ময়েশ্চারাইজ করে এই লিপবাম। এক টেবিল চামচ নারকেল তেল এবং এক টেবিল চামচ মোম একটি গ্লাসের পাত্রে মিশিয়ে অল্প আঁচে জ্বাল দিন। ঘন হয়ে আসলে নামিয়ে ফেলুন। এটি ঠোঁটে ব্যবহার করুন। এই লিপবামটি ঠোঁটকে হাইড্রেইড রাখবে দীর্ঘ সময়।

৩। স্মুদ শেভিং এর জন্য

অনেকেই হাত-পা শেভ করে থাকেন। শেভিং ক্রিমের পরিবর্তে নারকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন। এটি দামে সাশ্রয়ী সাথে এর অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল উপাদান শেভিংয়ের জ্বালাপোড়া দূর করতে সাহায্য করবে।

৪। বডি স্ক্রাব

নারকেল তেল শুধু হ্যান্ড স্ক্রাব হিসেবে কাজ করে না, এটি বডি স্ক্রাব হিসেবেও বেশ কার্যকর। ১/২ কাপ নারকেল তেল, ১/৪ কাপ লবণ, ১/২ কাপ ইপসোম লবণ, ২ চা চামচ মিনারেল এবং কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে নিন। এটি ত্বকে ম্যাসাজ করে লাগান। সপ্তাহে এক থেকে দুইবার এটি ব্যবহার করুন।

৫। সানস্ক্রিন বার

১/২ কাপ শিয়া বাটার, ১/২ কাপ নারকেল তেল এবং ৫ টেবিল চামচ মোম একটি গ্লাসের পাত্রে নিয়ে কুসুম গরম পানিতে চুলায় দিন। সবগুলো উপাদান গলে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। চুলা থেকে নামিয়ে ২ টেবিল চামচ জিঙ্ক অক্সাইড, ১/২ চা চামচ ভিটামিন ই অয়েল , ৩/৪ টেবিল চামচ ল্যাভেন্ডার অয়েল মিশিয়ে নিন। ঠান্ডা হলে ভাল করে নাড়ুন। বাজারে সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে না চাইলে এটি ব্যবহার করতে পারেন। এটি নিরাপদ এবং কার্যকর।