মেইন ম্যেনু

দক্ষিণ এশিয়াকে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত করবো

পারস্পারিক সহযোগিতায় এ বিশ্ব একদিন ক্ষুধা ও দারিদ্র্য মুক্ত হবে। আমরা গোটা বিশ্বকে না পারলেও দক্ষিণ এশিয়াকে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত করবো, এ বিশ্বাস আমরা রাখি।

রাজধানীর রাজধানীর হোটেল র‌্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনে ‘বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড পলিসি সামিট-২০১৬’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একথা বলেন। এসময় তিনি বাংলাদেশকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করতে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগকারীদের প্রতি সহযোগিতারও আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বিনিয়োগ বোর্ডের চেয়ারপারসন হিসেবে আমি বলতে চাই, বিনিয়োগের জন্য আপনাদের সব ধরনের সহযোগিতা দিতে আমরা প্রস্তুত।’ এসময় তিনি ‘এমন দেশটি কোথাও খুঁজে পাবে নাকো তুমি…’ কবিতার চরণ উদ্ধৃতি করে এ দেশে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানান।

তিনি আরো বলেন, ‘বিশ্বব্যাপী অনেক অনিশ্চয়তা ও উন্নত দেশগুলোতে মন্দাসহ সব প্রতিকূলতা উপেক্ষা করে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। গত ৭ বছর ধরে বাংলাদেশ তার অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি শুধু ধরেই রাখেনি, ক্রমাগতভাবে তা এগিয়েও নিয়ে যাচ্ছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজকের বাংলাদেশ অর্ধ-দশক আগের বাংলাদেশের চেয়ে সম্পূর্ণ ভিন্ন। এটা বদলে যাওয়া বাংলাদেশ। দেশের মানুষ আজ অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী, যেকোনো অসাধ্য সাধনে অনেক বেশি আত্মপ্রত্যয়ী ও সংকল্পবদ্ধ।’

‘গত অর্থবছরে আমাদের প্রবৃদ্ধি ছিল ৬ দশমিক পাঁচ-এক শতাংশ। আগের ৫ বছরের গড় প্রবৃদ্ধি ছিল ৬ দশমিক ২ শতাংশ। আমরা চলতি অর্থবছরে ৭ শতাংশের বেশি প্রবৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি। অর্থবছরের অর্ধেক সময় পেরিয়ে যে ধারণা পাওয়া যাচ্ছে, তাতে আমরা ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনে যথেষ্ট আশাবাদী’, বলেন প্রধানমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমদ, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, ব্যবসায়ী নেতা, বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকসহ দেশি-বিদেশি বিনিয়োগকারীরা উপস্থিত আছেন।