মেইন ম্যেনু

দরিদ্র পুরুষদের ‘বউ’ ভাগাভাগি করে থাকার পরামর্শ! কিন্তু কেন?

বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ চীনে বিবাহযোগ্য কনের সংখ্যা দিন দিন কমে যাচ্ছে। যার বিরূপ প্রভাব পড়ছে দেশটির অর্থনীতিতে। এই সমস্যা থেকে উত্তরণে অভিনব এক সমাধান দিয়েছেন চীনের ঝিজাং বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতির অধ্যাপক শি ঝাওশি। তিনি, দরিদ্র পুরুষদের স্ত্রী ভাগাভাগির পরামর্শ দেন।

চীনে নারী-পুরুষের সংখ্যার ভারসাম্যহীনতায় সামাজিক সঙ্কট দিন দিন প্রকট হচ্ছে। বর্তমানে দেশটিতে প্রতি ১শ’ জন মেয়ে শিশুর পরিবর্তে ১১৭টি ছেলে শিশু জন্ম নেয়। এছাড়া গ্রাম থেকে বহু মেয়ে কাজের জন্য শহরে পাড়ি জমাচ্ছে। ফলে বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলে বিয়ের জন্য কনে পাওয়া দুষ্কর হয়ে পড়ছে।

অধ্যাপক শি এক প্রবন্ধে লেখেন, ২০২০ সালের মধ্যে চীনে কনের অভাবে অবিবাহিত পুরুষের সংখ্যা দাঁড়াবে তিন থেকে চার কোটি। ফলে মেয়েদের দাম ক্রমাগত বাড়তে থাকবে। ধনী পুরুষরা পয়সা দিয়ে বউ পেয়ে যাবে, কিন্তু গরীবরা কি করবে? তারা কয়েকজন মিলে একটি মেয়েকে বউ হিসাবে গ্রহণ করতে পারে।

‘প্রত্যন্ত অনেক দরিদ্র এলাকায় এরকম ঘটনা এখনই ঘটছে। কয় ভাই মিলে একটি মেয়েকে তাদের বউ হিসাবে গ্রহণ করছে। তারা সুখেই বসবাস করছে’-বলে দাবি শি’র।

তার এই অভিনব সমাধানে চীনে, বিশেষ করে অনলাইনে, তীব্র বিতর্ক সৃষ্টি করেছে।

চীনের একটি নারী অধিকার নেটওয়ার্কের মুখপাত্র জিং শিওং বলেন, শি নারীদের পুরুষের যৌন ক্ষুধা মেটানো এবং সন্তান জন্মদানের পুতুল হিসাবে বিবেচনা করছেন।



« (পূর্বের সংবাদ)