মেইন ম্যেনু

দিনে কতবার গোসল স্বাস্থ্যসম্মত?

প্রতিদিন আমাদের কতবার গোসল করা উচিত তা নিয়ে মতভেদ রয়েছে। এটা মূলত নির্ভর করে আপনার চুল ও ত্বকের ওপর। প্রতিদিন একাধিকবার গোসল আপনার ত্বকের জন্য ভালো হতে পারে, আবার খারাপও হতে পারে। অতিরিক্ত গোসল চুলে বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে। যেমন, চুল ছোট বা ভেঙে যাওয়া। অতিরিক্ত প্রসাধনী ব্যবহারের কারণেও এমন হতে পারে।

গত বছরের এক জরিপে দেখা যায়, প্রতি পাঁচজনে চারজন প্রতিদিন গোসল করেন না। যুক্তরাজ্যের ম্যানচেস্টার, এডিনবার্গ, ল্যানকাস্টার এবং সাউদাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের পরিচালিত এক গবেষণা বলা হয়, এক তৃতীয়াংশ ব্যক্তি দিনে একবার গোসল করেন।

অস্ট্রেলিয়ান কলেজ অব ডার্মাটোলজিস্ট (চর্মরোগ বা ত্বক বিশেষজ্ঞ) এর সভাপতি প্রফেসর স্টিফেন শুম্যাক বলেন, যখন প্রয়োজন অনুভব করবেন তখনই গোসল করতে পারেন। গত পঞ্চাশ থেকে ষাট বছর আগে (যখন থেকে বাথরুম বা শাওয়ার চালু হয়েছে) নির্দিষ্ট একটি জায়গায় প্রতিদিন গোসল করার নিয়ম চালু হয়েছে। গোসল করার এই পদ্ধতি যতটা না প্রয়োজনের তার চেয়ে বেশি সামাজিক চাপ। এটি জনপ্রিয় হওয়ার প্রধান কারণ সবাই ভালো গন্ধ পছন্দ করে। বগল গ্রন্থি এবং কুঁচকি থেকে নিঃসৃত ঘাম আমাদের শরীরকে দুগর্ন্ধময় করে। দুর্গন্ধ শরীরের সব জায়গা থেকে তৈরি হয় না।

স্টিফেন শুম্যাক আরও বলেন, প্রতিদিন গরম পানি দিয়ে গোসল শরীরের জন্য ভালোর চেয়ে খারাপ করে বেশি। অতিরিক্ত ধোয়ার কারণে ত্বকে ফাটা, খসখস, শুষ্কতা দেখা দিতে পারে। তাছাড়া, ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ হতে পারে।