মেইন ম্যেনু

দিন দিন বেড়েই চলছে পরিবেশ দূষণের মাত্রা

টিপু সুলতান (রবিন), সাভার থেকে: পরিবেশ দূষণের অন্যতম প্রধান কারন বায়ু দূষণ। পরিবেশ দুষনের এ প্রধান কারণটি হুমকি হয়ে দাড়িয়েছে জীব বৈচিত্রে। তাই পরিবেশবিদরা বলছেন, পরিবেশ বাচাঁতে সরকারের এখনই যথাযথ পদক্ষেপ নেয়া উচিৎ।

দিন যাচ্ছে বায়ু দূষণের মাত্রাও বেড়েই চলছে । যেখানে জীবের জীবন ধারনে বায়ুই প্রধান। আর এই প্রধান উপাদানটি দুষিত হচ্ছে বিভিন্ন ভাবে। সাভার, আশুলিয়া ও ধামরাইয়ে গড়ে ওঠা অশংখ্য ইট ভাটার কালো ধোঁয়া, ফিটনেস বিহীন গাড়ি থেকে নির্গত ধোয়া, কল কারখানার ধোঁয়া, অপরিকল্পিত শীষা তৈরির কারখানার ধোঁয়া ,সিগারেটের ধোয়া, যেখানে সেখানে ময়লা আবর্জনা ফেলা, এত সব কারনেই মারাত্ত্বক ভাবে দুীষিত হচ্ছে বায়ূ।

বায়ু দুষনে শিশু থেকে শুরু করে ক্ষতিগ্রস্থ্য হচ্ছে সমাজের সব শ্রেনী পেশার মানুষ।দুষনের কবলে মারাত্ত্বক ক্ষতিগ্রস্থ্য হচ্ছে গাছপালাও। তাই জনসচেতনতা বাড়ানোর পাশাপাশি পরিবেশ আইন যথা যাথ কার্যকরের দাবি সাধারন মানুষের।

বায়ু দুষনের মারাত্ত্বক উপদান যেমন টকসিট,লেট,ইমিসন্স,নক্স,সস্ক,কার্বন্ডাইঅক্সাইড বাতাসে মিশে মানুষের দেহে প্রবেশ করায় দিন দিন মানুষের মাঝে ক্যানসারের ঝুকি বেড়ে যাচ্ছে মনে করছেন পরিবেশবিদরা।

পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় পরিবেশ সংরক্ষন আইন ১৯৯৫ কে সংশোধন করে ২০১০ সালে নতুন সংশোধনী আইন পাশ করে সরকার। আইন হলেও আইনের যথাযথ প্রয়োগ না থাকায় বেড়েই চলছে দুষনের মাত্রা।তাই এমন অবস্থ্যায় বায়ু দুষণ রোধে সরকারকে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে হবে এমনটাই মনে করছেন পরিবেশবিদরা।
ব্যাটারির শিশা হতে নতুন শিশা প্রস্তুত করার ছবি ২

ইটভাটার কালো ধুয়ার ছবি-১

ইটভাটার কালো ধুয়ার ছবি -৪