মেইন ম্যেনু

দিন দুপুরে সবার সামনে গাছতলায় পোস্ট মর্টেম! শুনলে শিউরে উঠবেন আপনিও…

ময়না তদন্ত শুনলেই নাকে পচা গন্ধ, ভারী পরিবেশের ছবিটাই আমাদের মাথায় আসে। কিন্তু সেই ময়না তদন্তই যদি খোলা জায়গায় হয়? ভাবলেই গা শিউরে উঠছে তো?

কিন্তু বাস্তবে এই ঘটনাই ঘটছে আমাদের দেশে। ছত্তিশগড়ের সোনহাট এলাকায় হাসদেও নদীর পাড়ে প্রকাশ্যেই ময়না তদন্ত করেন চিকিৎসকরা। কারণ, ময়নাতদন্তর জন্য যে ঘরটি রয়েছে, সেটিরই জরাজীর্ণ অবস্থা। একাংশ ভেঙে পড়েছে, তার উপরে ছাদ নেই। ফলে বাধ্য হয়ে প্রকাশ্যেই ময়না তদন্ত ছাড়তে হয় চিকিৎসকদের। অথচ, এই সোনহাট আবার ব্লক হেডকোয়ার্টার। একটি হিন্দি সংবাদপত্রে প্রকাশিত খবরের দাবি অনুযায়ী, আশেপাশের প্রায় ১০২টি গ্রাম থেকে সোনহাটে মৃতদেহের ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে আসা হয়।

কিন্তু স্থানীয় সমাজবিরোধীদের দৌরাত্মে ময়না তদন্তের ঘরটিরই বেহাল অবস্থা। যে টেবিলটির উপরে রেখে ময়নাতদন্ত করা হত, সেটিও সরিয়ে ফেলেছে তারা। বাধ্য হয়ে গাছতলাতেই মাটিতে মৃতদহে রেখে ময়না তদন্ত সারছেন চিকিৎসকরা। এমনকী, ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে এসে সারারাত প্রকাশ্যে মৃতদেহ পাহারাও দিতে হয় অনেককে।

স্থানীয় প্রশাসনের অবশ্য দাবি, ময়না তদন্তের জন্য ঘরটির সংস্কার করার জন্য উপরমহলে জানানো হয়েছে। ততদিন পর্যন্ত এভাবেই চালানো ছাড়া উপায় নেই।