মেইন ম্যেনু

দীঘিনালায় সেনাবাহিনীর সঙ্গে গোলাগুলি, অস্ত্রসহ আটক ১

খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালার দুর্গম পার্বত্য এলাকায় গোলাগুলির পর পাঁচটি অস্ত্র ও গুলিসহ একজনকে আটক করেছে সেনাবাহিনী।

আটক বড় শোভা চাকমা পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির এম এন লারমা অংশের নেতা বলে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

সেনাবাহিনীর জোনাল কমান্ডার লে. কর্নেল মোহসীন রেজার নেতৃত্বে সোমবার ভোরে দীঘিনালার দুর্গম সাধুচন্দ্র পাড়া এলাকায় এ অভিযান চালানো হয়।

সেখান থেকে একটি মেশিন গান ও দুটি এসএলআরসহ পাঁচটি আগ্নেয়াস্ত্র, একটি গ্রেনেড, নয়টি ম্যাগাজিন, ৪৫০টি গুলি, আটটি মোবাইল ফোন ও সেনাবাহিনীর ছয় সেট পোশক উদ্ধার করা হয়েছে বলে মোহসীন রেজা জানান।

তিনি বলেন, জনসংহতি সমিতির এম এন লারমার অংশের একটি দল ভারী অস্ত্র নিয়ে সন্তু লারমা অংশের ওপর হামলার পরিকল্পনা করছে খবর পেয়ে রোববার সন্ধ্যায় ওই এলাকা ঘেরাও করে ফেলে সেনা সদস্যরা।

“ভোরে সেখানে অভিযান চালাতে গেলে ঘণ্টাখানেক বন্দুকযুদ্ধ হয়। পরে সেখান থেকে জেএসএস নেতা বড় শোভা চাকমাকে অস্ত্রসহ আটক করা হয়।”

মহসীন রেজা বলেন, “তারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনার জন্য সেখানে জড়ো হয়েছিল। সাধারণ জনগণ যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সে দিক বিবেচনা করে আমরা আরও বড় ধরনের সশস্ত্র অভিযানে যাইনি।

দীঘিনালা থানার ওসি মো. মিজানুর রহমান বলেন, তারা অভিযানের কথা শুনলেও আটক কাউকে পুলিশের হাতে বুঝিয়ে দেওয়া হয়নি। অস্ত্র ও আটক ব্যক্তিকে বুঝে পেলে মামলা নথিভুক্ত করা হবে।