মেইন ম্যেনু

দুঃসাহসিক ‘নীরজা’কে নিষিদ্ধ করলো পাকিস্তান

‘নীরজা’ একজন ইতিহাসের চরিত্র। এই নামের সাথে জড়িয়ে আছে এক সত্যিকারের রোমহর্ষক ইতিহাস। মাত্র তেইশ বছর বয়সেই প্রায় সাড়ে তিনশো মানুষকে বাঁচিয়ে যে মেয়েটি মারা গিয়েছিলো তিনিই ‘নীরজা ব্যানট’। এই নীরজার কাহিনী নিয়েই বলিউডের ছবি ‘নীরজা’ মুক্তি পাচ্ছে আসছে ১৯ ফেব্রুয়ারি। ভারতের পাশাপাশি পাকিস্তানে ছবিটি মুক্তির কথা থাকলেও শেষ পর্যায়ে এসে ছবিটি মুক্তি দিতে অস্বীকৃতি জানায় পাকিস্তান!

ভারতের মত বেশ ক’দিন ধরে পাকিস্তানের শীর্ষস্থানিয় পত্রিকাগুলোতেও ‘নীরজা’ ছবিটির প্রচার প্রচারণা চলে আসছিল। পাকিস্তানের খবরে কাগজগুলোতেও নীরজা আসছে ১৯ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পাচ্ছে বলে খবর প্রকাশিত হয়। এমনকি পাকিস্তানের যে সিনেমা হলগুলোতে ছবিটি মুক্তি পাবে সেগুলোতেও বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয়। কিন্তু হঠাৎ পাকিস্তানে ছবিটি মুক্তির সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে পাকিস্তানের আমদানিকারক মন্ত্রণালয়।

তারা সিদ্ধান্ত পরিবর্তন প্রসঙ্গে কোনো যুক্তি পরিস্কারভাবে না বললেও ভারতীয় ছবি ‘নীরজা’কে পাকিস্তানে মুক্তি নিষিদ্ধ করে দেয়া।

নীরজা কোনো কাল্পনিক সিনেমার কাহিনী নয়। সত্যি সত্যিই ‘প্যান এএম’ বিমানের বিমানসেবিকা ছিলেন ভারতীয় নীরজা। ১৯৮৬ সালে পাকিস্তানে বিমানটি হাইজ্যাক করা হয়েছিল। সেদিন ৩৫৯ জনের প্রাণ বাঁচিয়েছিলেন নীরজা। আর সেই কাহিনী অবলম্বন করেই নীরজা ব্যানটের উপর নির্মিত ছবি ‘নীরজা’। এরইমধ্যে ছবিটি নিয়ে ভারতে চলছে ব্যাপক আলোচনা।

বিমান যাত্রীদের প্রাণ বাঁচানোর জন্য ভারত সরকার নীরজাকে মরনোত্তর ‘অশোক চক্র’ পুরস্কার দেন। ১৯ ফেব্রুয়ারি মুক্তির প্রতীক্ষায় থাকা নীরজা ছবিটি পরিচালনা করেছেন রাম মাধবানি। ছবিতে নীরজার চরিত্রে সোনম কাপুর ছাড়াও আছেন বিখ্যাত অভিনেত্রী শাবানা আজমি।