মেইন ম্যেনু

দুই ‘পা-ওয়ালা’ মাছ

মাছেরও নাকি আবার পা হয়! অবিশ্বাস্য হলেও এটিই সত্যি। নিউজিল্যান্ডে পাওয়া গেছে একটি দুই পা বিশিষ্ট মাছের সন্ধান। দেশটির অকল্যান্ডে সাগর তীরে রহস্যময় মাছটির সন্ধান পেয়েছেন দুই সাতারু।

মার্কিন গণমাধ্যম ‘গ্রিন্ড টিভি’ জানিয়েছে, সাতারু জেমস বিউভিঙ্ক (২০) এবং তার প্রেমিকা ক্লদিয়া হওসি (১৯) সাগর তীরে বেড়ানোর সময় অদ্ভুত প্রজাতির এই মাছটি দেখতে পান এবং তাদের নৌকার মধ্যে তুলে নেন। মাছটি ধীর গতিতে সেখানে হাঁটাহাটি করিছল।

বিউভিঙ্ক গণমাধ্যমকে বলে, ‘আমি তার ছোট ছোট দুটি পা দেখেছি। এর আগে এর মতো কিছু আমি দেখিনি। এটা ছিল খুবই শান্ত। এটা আমার ধরা বড় কোনো মাছ না, কিন্তু খুবই অদ্ভুত ধরনের।’

মাছটিকে তারা নিউজিল্যান্ডের ওয়েলিংটনে ‘টি পাপা টংগারেওয়া’ জাদুঘরে পাঠিয়েছে। জাদুঘরের সংগ্রহ বিভাগের ব্যবস্থাপক অ্যান্ড্রু স্টুয়ার্ট এটিকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে এর একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেছে। আর এর পরপরই তা ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করে।

এক ই-মেইল বার্তায় স্টুয়ার্ট গ্রিন্ড টিভিকে জানিয়েছেন, এটি ডোরাকাটা ‘অ্যাঙ্গলারফিশ’ প্রজাতির মাছ। মাছটি ডোরাকাটা ‘ফ্রগফিশ’ নামেও পরিচিত।

২০০৮ সালে একই রকম একটি মাছ জাদুঘরটিতে পাঠানো হয়েছিল। তখন থেকেই এই রহস্যময় মাছটি সম্পর্কে জানতো জাদুঘর কর্তৃপক্ষ। আটলান্টিক, ভারত এবং প্রশান্ত মহাসাগরের গ্রীষ্মমণ্ডলীয় এবং অর্ধ-গ্রীষ্মমণ্ডলীয় এলাকায় এ প্রজাতির মাছ দেখতে পাওয়া যায়। এটি দেখতে সম্পূর্ণ কালো।

যেকোনো মেরুদণ্ডী প্রাণির তুলনায় দ্রুত কামড়াতে পারে মাছটি। .২২ বোরের রাইফেলের গুলি ছোড়ার মতো দ্রুত মুখ খুলতে ও বন্ধ করতে পারে মাছটি।

ছোট ছোট মাছকে আকৃষ্ট করতে এটি তার আকর্ষণীয় পাখাকে টোপ হিসেবে ব্যবহার করে। ছোট মাছেরা এর দিকে ছুটে আসে। তখনই নিজের মুখটি খুলে দেয় এই মাছটি। ছোট মাছগুলো ঢুকে যায় এর মুখে। আর তাদের গোগ্রাসে গিলে নেয় এটি।



« (পূর্বের সংবাদ)