মেইন ম্যেনু

দুর্গাপুরে অতিবর্ষন ও পাহাঢ়ী ঢলে পৌরসভা সহ ৭ ইউনিয়ন প্লাবিত

দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি : নেত্রকোনার দুর্গাপুরে অবিরাম বর্ষন ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে সোমেশ্বরী নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় পৌরসভা সহ ৭টি ইউনিয়নে বন্যা দেখা দিয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখাগেছে, গত ২দিনের মুসলধারে বৃষ্টিপাতের ফলে পাহাড়ী ঢলের পানি বেড়ে উপজেলার সদর ইউনিয়নের মেনকীফান্দা, মাসকান্দা, চন্দ্রকোনা মায়ানগর, শ্যামনগর, গাঁওকান্দিয়ার- ভাদুয়া, দক্ষিন ভবানীপুর, শংকরপুর, তীতারজান কুল্লাগড়ার- কামারখালী, সনারকান্দা, খুজিগড়া, বিপিনগঞ্জ, বিরিশিরির- দাখিনাইল, করুনিয়া, গাভীনা, সাগরদিঘীরপাড়, কাকৈরগড়ার- ঝাঞ্জাইল বাজার, নগুয়া, তাতিরকোনা, লক্ষীপুর, বাকলজোড়ার- কেট্রা, গুজিরকোনা, রামনগর, নাগেরগাতী, চন্ডিগড়ের- কেরনখলা, গোহালিয়াকান্দা, ফেচিয়া, সাতাশী, পৌরসভার- বুরুঙ্গা, মাকরাইল, চরমুক্তারপাড়া, মুজিবনগর, দক্ষিনপাড়া, সহ বিভিন্ন এলাকার রাস্তাঘাট তলিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোতে পানি প্রবেশ করেছে। উপজেলার বিভিন্ন মৎস খামারের মাছ ভেসে গেছে। প্লাবিত গ্রামগুলোতে সংকটে রয়েছে জ্বালানী ও গো-খাদ্যের।

উপজেলা কৃষিকর্মকর্তা ওমর ফারুক বলেন, দুর্গাপুরে এবার ৫শত হেক্টর আমন ধান রোপন করা হয়েছে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে পুরো উপজেলার আমন ফসল নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

উপজেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা জানান, অবিরাম বর্ষন ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে সোমেশ্বরী নদীর পানি বিপদ সীমার ১৫০সেঃমিঃ উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মামুনুর রশীদ বলেন, আমরা সব ধরনের বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রস্তত রয়েছি। আশা করছি বড় ধরনের কোন বিপদ হবে না। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ এমদাদুল হক খান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মামুনুর রশীদ বন্যা দুর্গত এলাকা পরিদর্শনে রয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই