মেইন ম্যেনু

দুর্নীতি মামলায় বদির পক্ষে আংশিক যুক্তি উপস্থাপন

অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলায় সরকার দলীয় সাংসদ আবদুর রহমান বদির পক্ষে আদালতে আংশিক যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করা হয়েছে।

বুধবার ঢাকার ৩ নম্বর বিশেষ জজ আদালতে বদির পক্ষে এ যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন তার আইনজীবী মাহবুব আহমেদ। আসামিপক্ষের আইনজীবীরা আংশিক যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করে অবশিষ্ট যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য সময়ের আবেদন করলে বিচারক আবু আহমেদ জমাদার আগামী ২১ সেপ্টেম্বর যুক্তি উপস্থাপনের জন্য দিন ধার্য করেছেন।

যুক্তিতর্ক উপস্থাপনকালে বদি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। এর আগে গত ১০ আগস্ট দুদকের পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করা হয়। মামলাটিতে ২০১৫ সালের ৯ সেপ্টেম্বর বদির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত।

২০১৪ সালের ২১ আগস্ট এমপি বদির বিরুদ্ধে দুদকের উপপরিচালক মোহাম্মদ আব্দুস সোবহানের দায়ের করা ওই মামলা নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া হলফনামার বাইরে ১০ কোটি ৮৬ লাখ ৮১ হাজার ৬৬৯ টাকা অবৈধ সম্পদ থাকার অভিযোগ পাওয়া যায়। সম্পদ ৩৫১ গুণ বৃদ্ধি পাওয়া, পাঁচ বছরে তার আয় ৩৬ কোটি ৯৬ লাখ ৯৯ হাজার ৪০ টাকা। হলফনামা অনুসারে তার বার্ষিক আয় ৭ কোটি ৩৯ লাখ ৩৯ হাজার ৮০৮ টাকা। আর বার্ষিক ব্যয় ২ কোটি ৮১ লাখ ২৯ হাজার ৯২৮ টাকা।

২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে জমা দেয়া হলফনামায় তার বার্ষিক আয় ছিল ২ লাখ ১০ হাজার ৪৮০ টাকা। ব্যয় ছিল ২ লাখ ১৮ হাজার ৭২৮ টাকা। ওই সময় বিভিন্ন ব্যাংকে তার মোট জমা ও সঞ্চয়ী আমানত ছিল ৯১ হাজার ৯৮ টাকা।

২০১৫ সালের ৭ মে দুদকের উপপরিচালক মঞ্জিল মোর্শেদ আদালতে অভযিোগপত্র দাখিল করেন।