মেইন ম্যেনু

দেবহাটার ধোপাডাঙ্গায় এলাকাবাসীর সাংবাদিক সম্মেলন

দেবহাটার ধোপাডাঙ্গা গ্রামের ফজিয়াত রহমানের ছেলে স্থানীয় দোকানদার এছানুর রহমানকে স্থানীয় উচ্ছৃঙ্খল যুবকেরা মারপিট এবং দোকান ভাংচুর করে উল্টো দোকানদারসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের করায় এলাকাবাসী ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে শুক্রবার বিকালে স্থানীয় এহছানুরের দোকানের সামনে এক সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করে।

এসময় এলাকাবাসী জানান, গত ২ সেপ্টেম্বর এলাকার বহু অঘটনের সৃষ্টিকারী আজগার আলীর পুত্র সোহেল ও সোহাগ এবং রাজ্জাকের পুত্র হাসানুর মিলে স্থানীয় দোকানদার এছানুর রহমানকে অতর্কিত হামলা করে। এসময় তারা শুধুমাত্র দোকানের মালামাল নষ্ট করে তারা ক্ষান্ত হয়নি, তারা এছানুরসহ ঐ এলাকার শিক্ষক ও সাংবাদিক সখিপুর আহছানিয়া মিশনের সেক্রেটারী আবু তালেবকে জড়িয়ে এলাকার আরো কিছু আওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের কর্মী আলমগীর, মজিদ, রনি, আরিফ বিল্লাহ, নান্টুসহ অনেকের নাম জড়িয়ে থানায় মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করে এবং প্রকাশ্যে তাদেরকে জীবন নাশের হুমকি দেয়।

ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে জনগন ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে। বিশেষ করে শিক্ষক ও সাংবাদিক মিশন সেক্রেটারী আবু তালেব বিকাল থেকে অনেক রাত অবধি এলাকায় না থাকা সত্ত্বেও তার মত মানুষকে হয়রানি করায় এলাকার হিন্দু মুসলমানসহ সকল রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ ক্ষোভে ফেটে পড়েন। তারই প্রেক্ষাপটে বিকাল ৪ ঘটিকায় স্থানীয় জনগণ এক সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করে।

ঘটনাস্থলে নেতৃবৃন্দ সকল গ্রামবাসীর কাছে উক্ত মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য শুনে এবং এলাকার আওয়ামীলীগ কর্মীদের নাম জড়িয়ে তাদের সম্মান হানি করায় প্রতিবাদ জানিয়েছে।

সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সখিপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক আব্দুল আজিজ, ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি আকবার সরদার, ৪ নং ওয়ার্ড তথা উক্ত এলাকার ওয়ার্ড সভাপতি দিপক কুমার মন্ডল, পারুলিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সেক্রেটারী রাসেল আহমেদ, এলাকার প্রাক্তন মেম্বর আওয়ামীলীগ নেতা আনারুল হক, ৫ নং ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল ওহাব, ধোপাডাঙ্গা ৪ নং ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা হিসাব উদ্দীন সরদার, যুবলীগ নেতা যথাক্রমে মিজানুর রহমান, আলাউদ্দিন, রনি, আরিফসহ শিক্ষক, সাংবাদিক ও সুশিল সমাজের প্রতিনিধিবৃন্দ সহ স্থানীয় ৪ শতাধিক এর অধিক জনতা।